চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বর্ষসেরা দলে নেই রিয়ালের কেউ, চ্যাম্পিয়ন সালাহও নেই

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের বর্ষসেরা দলে জায়গা হয়নি রিয়াল মাদ্রিদের কোনো খেলোয়াড়ের। অনুমিতভাবেই লিভারপুলের খেলোয়াড়দের আধিপত্য উয়েফা ঘোষিত দলে। চ্যাম্পিয়নদের ছয়জন খেলোয়াড় জায়গা পেলেও তাতে জায়গা হয়নি ফাইনালে গোল করা মোহামেদ সালাহ’র।

২০১৬, ২০১৭ ও ২০১৮ সালে টানা চ্যাম্পিয়ন হওয়া রিয়ালের কোনো খেলোয়াড় জায়গা না পেলেও বার্সেলোনা থেকে দুজন জায়গা করে নিয়েছেন বর্ষসেরার দলে।

বিজ্ঞাপন

শনিবার রাতে টটেনহ্যামকে ২-০ গোলে হারিয়ে শিরোপা জেতে লিভারপুল। তার একদিন পর নিজেদের ওয়েবসাইটে ২০ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষণা করল টুর্নামেন্টের আয়োজক উয়েফা।

চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল থেকে সর্বোচ্চ ছয়জন খেলোয়াড় উয়েফার বর্ষসেরা দলে জায়গা করে নিয়েছেন। সেমিফাইনালিস্ট আয়াক্স থেকে পাঁচজন এবং ফাইনালিস্ট টটেনহ্যামের তিনজন খেলোয়াড় স্কোয়াডে আছেন।

বার্সেলোনার মতো ম্যানচেস্টার সিটিরও দুজন খেলোয়াড় সেরা দলে স্থান করে নিয়েছেন। অলিম্পিক লিও এবং জুভেন্টাস থেকে একজন করে খেলোয়াড় জায়গা পেয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

বার্সেলোনা থেকে লিওনেল মেসি এবং মার্ক আন্দ্রে টের স্টেগেন বর্ষসেরা দলে জায়গা করে নিয়েছেন। জুভেন্টাস থেকে জায়গা পেয়েছেন কেবল ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।

উয়েফার বর্ষসেরা দল
গোলরক্ষক: অ্যালিসন বেকার (লিভারপুল), মার্ক আন্দ্রে টের স্টেগেন (বার্সেলোনা)

ডিফেন্ডার: ভার্জিল ভন জিক (লিভারপুল), ম্যাথিয়াস ডি লিট (আয়াক্স), জ্যাঁ ভ্যারটনগ্যান (টটেনহ্যাম), ট্রেন্ট আলেকজান্ডার আর্নল্ড (লিভারপুল), অ্যান্ডি রবার্টসন (লিভারপুল)

মিডফিল্ডার: মৌসা সিসোকো (টটেনহ্যাম), হাকিম জিয়েক (আয়াক্স), কেভিন ডি ব্রুইন (ম্যানচেস্টার সিটি), ফ্রাঙ্ক ডি জং (আয়াক্স), ট্যাঙ্গুইন নম্বেলে (অলিম্পিক লিঁও), জর্জিনহো ভিনালদাম (লিভারপুল), ডেভিড নরেস (আয়াক্স), রাহিম স্টার্লিং (ম্যানচেস্টার সিটি)

ফরোয়ার্ড: লিওনেল মেসি (বার্সেলোনা), ডুজান ট্যাডিক (আয়াক্স), সাদিও মানে (লিভারপুল), ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো (জুভেন্টাস), লুকাস মৌরা (টটেনহ্যাম)

Bellow Post-Green View