চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বঙ্গবন্ধুর খুনীদের খেতাব বাতিলের প্রক্রিয়া শুরু: মোজাম্মেল হক

দেশের সর্বোচ্চ আদালত তাদের বঙ্গবন্ধুর খুনী সাব্যস্ত করে সর্বোচ্চ সাজা দিলেও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে দেখা যায় এখনও তাদের দুজনের নাম খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকায়। এখনও ‘বীর বিক্রম’ ও ‘বীর উত্তম’ হিসেবে ওই ওয়েবসাইটে সবার কাছে পরিচিত হচ্ছেন বঙ্গবন্ধুর দুই খুনী ক্যাপ্টেন নূর চৌধুরী ও মেজর শরিফুল হক ডালিম।

বিজ্ঞাপন

১৯৭৫ সালের নারকীয় হত্যাযজ্ঞের কুশীলবদের এমন উপাধি এখনও কেন বহাল রয়েছে বা সেটা প্রত্যাহার করতে কী ধরণের পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে, এমন প্রশ্নের জবাবে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, এই দুই খুনীর খেতাব বাতিলের প্রক্রিয়া আমরা শুরু করেছি। মুক্তিযুদ্ধের পর হওয়া খেতাবকমিটি এখন নেই। তারা থাকলে সেটা প্রত্যাহার করতে পারতো। তাই এখন এটা রাষ্ট্রপতির কাছে যাবে। এছাড়া আইন মন্ত্রণালয়ে বিষয়টি আমরা জানিয়েছি। তাদের পরামর্শমতো যেভাবে করা দরকার সেভাবেই এটা বাতিলের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হবে।

বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত আসামী বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনি নুর চৌধুরী ১৯৯৬ সাল থেকে কানাডায় বসবাস করছে। আর বঙ্গবন্ধুকে খুনের পর পর মেজর ডালিম বাংলাদেশ বেতারে নিজেই হত্যার সাথে জড়িত থাকার কথা ঘোষণা দেয়। মৃত্যুদণ্ডের সাজা পাওয়ার পর দীর্ঘদিন লিবিয়ায় পলাতক থেকে স্পেনে আশ্রয় নেয় এই খুনী।

বিজ্ঞাপন