চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কাতার বিশ্বকাপ নিয়ে অনিয়ম, প্লাতিনি গ্রেপ্তার

গ্রেপ্তার করা হয়েছে ফ্রান্সের ফুটবল কিংবদন্তি মিশেল প্লাতিনিকে। কাতারকে অনৈতিকভাবে ২০২২ বিশ্বকাপ আয়োজন করতে দেয়ার অপরাধে উয়েফার সাবেক প্রেসিডেন্টকে আটক করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে কাতার বিশ্বকাপ দুর্নীতি মামলায় জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য প্লাতিনিকে প্যারিসের নতেঁরেসে পুলিশি হেফাজতে নেয়া হয়। এমন রিপোর্ট ফরাসি অনলাইন তদন্তকারী জার্নাল মিডিয়াপার্টের। ৬৬ বছরের প্লাতিনির বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। দেশটির মিডিয়া জানাচ্ছে, ঘুষের বিনিময়ে কাতারকে বিশ্বকাপ আয়োজন করার সুযোগ দিয়েছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

২০১০ সালে মরুদেশ কাতারকে বিশ্বকাপ আয়োজনের দায়িত্ব দেয় ফিফা। তারপর থেকেই এনিয়ে নানা বিতর্ক তৈরি হয়। ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থার বিরুদ্ধে এমন অভিযোগও উঠেছে যে, কাতারকে বিশ্বকাপ আয়োজনের দায়িত্ব তুলে দেয়ার সময় বড় দুর্নীতির পথই ধরা হয়েছিল।

ফিফার ভাইস-প্রেসিডেন্ট জ্যাক ওয়ার্নার তখন দাবি করেছিলেন, বিশাল অঙ্কের অর্থের বিনিময়ে কাতারকে বিশ্বকাপের আয়োজক সত্ত্ব উপহার দেয়া হয়েছিল। ২০১৪ সালে কাতারের নাম চূড়ান্ত ঘোষণা করার আগে প্লাতিনি গোপনে বৈঠক করেছিলেন দেশটির ফুটবল প্রশাসক ও এএফসি’র (এশিয়া ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন) প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ বিন হাম্মামের সঙ্গে। সেকথা স্বীকারও করেন প্লাতিনি।

২০০৭ সাল থেকে ২০১৫ পর্যন্ত উয়েফার প্রেসিডেন্ট ছিলেন প্লাতিনি। আর্থিক অনিয়মে দোষী প্রমাণিত হয়ে উয়েফা থেকে নিষিদ্ধ হন। এখানেই শেষ নয়। ফিফা প্রেসিডেন্ট সেপ ব্ল্যাটারের বিশ্বস্ত ডান হাত ছিলেন তিনি। তাতে উয়েফা প্রেসিডেন্টের পাশাপাশি ফিফার টেকনিক্যাল এন্ড ডেভেলপমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবেও দায়িত্ব পালন করে প্লাতিনি। পরে দুর্নীতিতে জড়ানোয় ব্ল্যাটার এবং প্লাতিনিকে চার বছরের জন্য ফুটবলের সবরকম কার্যক্রম থেকে নিষিদ্ধ করা হয়।

বিজ্ঞাপন