চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্রোটিয়া ঝড়ের জন্য প্রস্তুত স্মিথ-ওয়ার্নার

আবারও সেই সাউথ আফ্রিকায় যাচ্ছেন স্টিভেন স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নার। দুবছর আগে যে দেশে তাদের বল টেম্পারিং কাণ্ড কাঁপিয়ে দিয়েছিল ক্রিকেটবিশ্বকে। এক বছরের জন্য আন্তর্জাতিক অঙ্গন থেকে নির্বাসন পেয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার তখনকার অধিনায়ক, সহ-অধিনায়ক। নির্বাসন থেকে ফিরে দারুণ খেলছেন দুজনে। আবারও যখন সাউথ আফ্রিকার বিমান ধরার অপেক্ষায় স্মিথ-ওয়ার্নার, সতর্ক করে জাতীয় দল সতীর্থ জস হ্যাজেলউড বললেন, এবারের সফরটা বেশ কঠিন হতে চলেছে দুজনের জন্য!

তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টুয়েন্টি খেলতে শুক্রবার সাউথ আফ্রিকাগামী বিমানে উঠবেন অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটাররা। যথারীতি আছেন দারুণ ফর্মে থাকা স্মিথ ও ওয়ার্নার। গত বছরের মার্চে নির্বাসন কাটিয়ে ফেরার পর দুজনের এটাই প্রথম প্রোটিয়া সফর, অস্ট্রেলিয়ারও।

ব্যাটে ভালো কাটলেও নির্বাসন থেকে ফিরে সমর্থকদের আচরণে বেশ কঠিন সময় পার করেছেন স্মিথ-ওয়ার্নার। ইংল্যান্ডে হওয়া বিশ্বকাপ ও অ্যাশেজ খেলতে নেমে প্রতি মুহূর্তেই ইংলিশ সমর্থকদের কথার আক্রমণের শিকার হয়েছেন। সেই পরিস্থিতি সামলে আসা স্মিথ-ওয়ার্নারকে প্রোটিয়া সমর্থকরা খুব একটা কাবু করতে পারবে না বলেই বিশ্বাস হ্যাজেলউডের।

বিজ্ঞাপন

‘যতবারই স্টিভ আর ডেভকে কোনো বাক্সে বন্দী করা হয়েছে, ঠিকই ওরা কায়দা করে বের হয়ে গেছে। এটাও তেমনি একটা। আমার মনে হয় না এতে ওরা খুব একটা কাবু হবে’ বৃহস্পতিবার এমনই বলেছেন অজি পেসার হ্যাজেলউড।

‘বরং যখন এমন পরিস্থিতি তৈরি হয় তখনই মনে হয় ওরা আরও বেশি ভালো খেলে। আর এমনও নয় যে বিষয়টি আমাদের জন্য নতুন, আমরা ভালোই খেলবো।’

দর্শকরা দুয়ো দিলে তা থেকে স্মিথ-ওয়ার্নারকে রক্ষার জন্য আলাদা ব্যবস্থারও দরকার নেই বলে মনে করেন হ্যাজেলউড, ‘যতটা সম্ভব উত্তাপ ওরা সহ্য করবে। বাকিটা তরুণদের পাদপ্রদীপের আলোয় নিয়ে আসলেই হবে।’

বিজ্ঞাপন