চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্রধানমন্ত্রীর শুভ ইচ্ছার প্রতি মন্ত্রীদের সম্মান

এসএসসি পরিক্ষার্থীদের সুবিধায় যানজট এড়াতে প্রধানমন্ত্রীর শুভ ইচ্ছার প্রতি সম্মান জানিয়ে ট্রাফিক সিগন্যাল মেনেই মন্ত্রীরা সোমবার সকালে মন্ত্রিসভার বৈঠকে যোগ দিয়েছেন। পতাকাবাহী গাড়ির উল্টোপথে চলা নিত্যচিত্র হলেও এদিন একটি ব্যতিক্রম ছাড়া কাউকে ‘রং সাইড’ দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের দিকে যেতে দেখা যায়নি।

তবে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের বাড়তি চাপে নগরীর অনেক এলাকাতেই অন্যদিনের চেয়ে যানজট বেশি ছিলো যে কারণে অনেকে মনে করেছেন, অনেক মন্ত্রীর একইসময় চলাচলের কারণে যানজট বেড়েছে।

কিন্তু, মন্ত্রীদের গাড়িবহর নিয়ম মেনে চলায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে যোগ দেওয়া মন্ত্রীদের চলাচলের পথ শাহবাগ থেকে বিজয় সরণী পর্যন্ত রাস্তায় বড় কোনো যানজট দেখা যায়নি।

ট্রাফিক পুলিশও বলেছে, তারা মন্ত্রীদের গাড়িবহরের জন্য বাড়তি ছাড় দেয়নি। 

তারপরও অন্যদিনের অভিজ্ঞতায় কেউ পতাকাবাহী গাড়িবহরের দিকেই অভিযোগের আঙুল তুলেছেন। ব্যাংক কর্মকর্তা শফিক হায়দার বলেন, ‘আজ পাবলিক পরীক্ষা এটা মাথার রেখেই সকাল সকাল বের হয়েছিলাম। কিন্তু শেওড়াপাড়া থেকে বিজয় সরণী পর্যন্ত দীর্ঘক্ষণ জ্যামে বসে থাকতে হয়েছে।

বেসরকারী একটি প্রতিষ্ঠানের বিক্রয়কর্মী সানজিদা ফারহানা বলেন: মন্ত্রী-এমপিরা সবাই ভিআইপি। যতো ভোগান্তি সব আমাদের। ওনারা যদি জনগণের কথা আসলেই ভাবতেন তাহলে হয়তো নগরবাসীকে বছরের পর বছর যানজটে কারণে স্থবির জীবন কাটাতে হতো না।

তবে সরেজমিন দেখা গেছে, এসএসসি পরীক্ষা শুরুর দিন শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের বাড়তি চাপে রাজধানীর অনেক এলাকাতেই স্বাভাবিক জ্যামের চেয়ে বেশি যানজট থাকলেও ওইসব এলাকায় গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের কোনো গাড়িবহর ছিলো না।

রাজধানীর কারওয়ান বাজার সার্ক ফোয়ারা মোড়ে দুই ঘণ্টা পর্যবেক্ষণ করে দেখা গেছে গুরুত্বপূর্ণ সড়কটিতে সকাল ৯টা থেকে সাড়ে ১০ পর্যন্ত তেমন বড় যানজটের ঘটনা ঘটেনি। এই পথে মন্ত্রীদের গাড়িবহরকে ট্রাফিক সিগন্যাল মেনে চলতে দেখা গেছে।

Advertisement

ব্যতিক্রমও অবশ্য ছিলো। সকাল পৌণে ১০টার দিকে পুলিশ প্রটোকলসহ পতাকাবাহী একটি সোনালি ল্যান্ড ক্রুজারকে সোনারগাঁ মোড়ে উল্টো পথে আসতে দেখা যায়। তবে গাড়িটিতে কোনো মন্ত্রী ছিলেন কিনা তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

এস.এস.সি পরীক্ষার প্রথম দিনে যানজট নিয়ন্ত্রণ এবং মন্ত্রীদের যাতায়াত নিয়ে চ্যানেল আই অনলাইনের সঙ্গে কথা বলেন সার্ক ফোয়ারা মোড়ের ট্রাফিক পরিদর্শক খাদেমুল ইসলাম।

তিনি বলেন: আজ একই দিনে পরীক্ষা ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠক উপলক্ষে ডিএমপি ট্রাফিক বিভাগ বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছে।

‘সকাল থেকেই যানজট নিয়ন্ত্রণে ডিএমপির সিনিয়র অফিসাররা রাস্তায় আছেন। প্রধানমন্ত্রী পরীক্ষার্থীদের সুবিধার জন্য যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তা বাস্তবায়নে আন্তরিকতা নিয়েই রাস্তায় আছি আমরা,’ বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার্থীদের যাতায়াতের সুবিধার্থে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোববার বিকেলেই মন্ত্রিসভার বৈঠকের স্থান ও সময়সূচি পরিবর্তন করেন। সোমবার সকালে মন্ত্রিসভার বৈঠক সচিবালয়ের পরিবর্তে অনুষ্ঠিত হয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে।

পরিক্ষার্থীরা নিজ নিজ কেন্দ্রে ঢুকে যাওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী তার সরকারী বাসভবন গণভবন থেকে বের হন সকাল সাড়ে ১০টায়।

এর আগেই মন্ত্রীপাড়ার বা সচিবালয় থেকে মন্ত্রীরা প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পৌঁছান।

মন্ত্রিসভার বৈঠকে এদিন যুদ্ধাপরাধীদের নাগরিকত্ব বাতিলে গুরুত্বপূর্ণ একটি আইন চূড়ান্ত করা হয়েছে।