চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

পেশাদার ‘স্ক্রিপ্ট ডক্টর’ হিসেবে কাজ শুরু করলেন দীপংকর দীপন

আলোচিত ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবির পরিচালক দীপংকর দীপন পেশাদার ‘স্ক্রিপ্ট ডক্টর’ হিসেবে কাজ শুরু করেছেন, যা বাংলাদেশে নেই বললেই চলে। দীপনের মতে, উন্নত বিশ্বে কাজটির প্রচলন থাকলেও ভারতীয় উপমহাদেশে বিশেষ দেখা যায় না।

এদিকে উইকিপিডিয়া বলছে, স্ক্রিপ্ট ডক্টরকে সিনেমা, নাটক বা ওয়েব সিরিজের জন্য প্রোডাকশন কোম্পানি থেকে ভাড়া করা হয়। তৈরি চিত্রনাট্যের উপর ঘষামাজা এবং গঠন, চরিত্রায়ণ, সংলাপ, থিমসহ বিভিন্ন বিষয়ে কাজটা করার জন্য। অনেক নামকরা সিনেমা যেমন স্পিড, এয়ারফোর্স ওয়ান, আরমাগডন, দ্য বর্ন আলটিমেটাম, লেথাল উইপেন, গন ইউথ দ্য উইন্ড, সুপারম্যান, ইন্ডিয়ানা জোনস, এনিমি অব দ্যা গেটস এসব ছবিতে স্ক্রিপ্ট ডক্টর হিসেবে পেশাদার লেখকরা কাজ করেছেন।

বিজ্ঞাপন

সে কাজটাই এবার পেশাদারিত্ব নিয়ে শুরু হলো বাংলাদেশে অনন্য মামুন পরিচালিত ছবি ‘নবাব এলএলবি’ দিয়ে। যেখানে তারকা অভিনেতা শাকিব খানের সঙ্গে মাহিয়া মাহি ও অর্চিতা স্পর্শিয়া রয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় দীপংকর দীপন চ্যানেল আই অনলাইনের সঙ্গে আলাপে জানান, তার ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবিতেও সিনেমাস নামে সাত-আটজনের টিম কাজ করেছিল। পোস্টারে তাদের নামও আছে। নির্মাণাধীন ‘অপারেশন সুন্দরবন’ ও ‘ঢাকা ২০৪০’-তেও টিম কাজ করেছে।

তিনি বলেন, ‘নবাব এলএলবি’র একটি পূর্ণ চিত্রনাট্য ছিল। এতে আমি ‘স্ক্রিপ্ট ডক্টর’ হিসেবে যুক্ত হয়েছি। আগামীতে ‘ত্রিভুজ’ নামে একটি ছবি করবো। তার আলোচনা করতে গিয়ে অনন্য মামুনের সঙ্গে ভালো বোঝাপড়া তৈরি হয়েছে। সেই সুবাদে মামুনের এ ছবির সঙ্গে চিত্রনাট্যের কাজে যুক্ত হওয়া। মামুন আমাকে তার চাহিদা গুলো বুঝিয়ে দিয়েছেন। আমাকে পুর্ণ স্বাধীনতা দিয়েছেন- আমি তার রাইটার দের সাথে অনলাইন, কখনো সশরীরে মিটিং করে কাজটা শেষ করেছি।

টানা ১০ দিন ধরে ‘নবাব এলএলবি’র পূর্ণ চিত্রনাট্য নিয়ে কাজ করেছেন দীপংকর দীপন। বললেন, পরিচালকের দেয়া সম্পূর্ণ ওই চিত্রনাট্যে স্ক্রিপ্ট ডক্টরিং এর কাজ করেছি। তিনি মনে করেন, সাধারণত নির্মাতারা যে চিত্রনাট্য লেখেন তার বাইরে অন্য কারও মতামত নেয়া পছন্দ করেন না। অন্যন্য মামুন এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম। তার মধ্যে ভালো সিনেমার জন্য ক্ষুধা দেখেছি।

দীপন বলেন, সিনেমায় অনন্য মামুন আমার চেয়ে অভিজ্ঞ তারপরেও তিনি তার ছবির জন্য পেশাদারভাবে আমাকে নিয়োগ করে আমার মতামত নিয়েছেন। যেমন- পাঁচটি বললে উনি তিনটি তার সঙ্গে একমত হওয়ায় গ্রহণ করেছেন। দুজনেই নিজেদের মতামত শেয়ার করে ভুল সংশোধন করেছি। তারা সমন্বিত মতামত নিয়ে চূড়ান্ত চিত্রনাট্য তৈরি করছি।

তিনি বলেন, এতে করে কাজগুলো নিখুঁত হয়। কারণ একটি ভালো চিত্রনাট্য থেকে খারাপ সিনেমা হতে পারে। কিন্তু খারাপ চিত্রনাট্য থেকে কখনো ভালো সিনেমা হতে পারে না। শুধুমাত্র চিত্রনাট্য শক্তিশালী করার জন্য উন্নত ইন্ডাস্ট্রিগুলোতে একটি টিম কাজ করে। তাদের কাজ, শুধুমাত্র চিত্রনাট্য ঘষামাজা করে শক্তিশালী করা। আমি এরকম স্ক্রিপ্ট ডক্টরিং ল্যাব জার্মানিতে, ইউকেতে দেখেছি। এই সুন্দর চর্চাটা আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতেও প্রচলিত হোক।

দীপংকর দীপন জানান, এই কাজের অনুপ্রেরণায় ‘ব্যাক এন্ড স্ক্রিপ্ট ডক্টরিং ল্যাব’ নামে একটি ল্যাব তৈরি করতে যাচ্ছেন, যেখানে যে কেউ তার ছবি, ওয়েব সিরিজের চিত্রনাট্য নিয়ে কাজের জন্য নিতে পারেন।

তিনি বলেন, আমাদের দেশের সিনেমার নির্মাণ কৌশল ভাল, চিত্রনাট্য উন্নত হলে আমাদের সিনেমা উল্লেখযোগ্য ভাবে একধাপ সামনে এগিয়ে যাবে।

সেলেব্রেটি প্রোডাকশনের ব্যানারে ‘নবাব এলএলবি’তে দীপনের যুক্ত হওয়া প্রসঙ্গে অনন্য মামুন বলেন, রেডি চিত্রনাট্যে তার সঙ্গে বিভিন্ন দিক আলোচনা ফাইনাল করেছি। উনি একজন ভালো ক্রিয়েটিভ মানুষ বলে তাকে সঙ্গে রেখেছি। শুটিং শুরু প্রসঙ্গে তিনি বলেন, অনেক জটিলটা ছিল। সবকিছু কাটিয়ে উঠেছি। শুটিং কবে শুরু হবে চূড়ান্ত তারিখ জানাতে আরও দুদিন সময় লাগবে। আশা করছি, শিগগির আমরা ‘নবাব এলএলবি’র শুটিং শুরু করবো।