চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আন্দোলনরত ভারতীয় কৃষকরা পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে ভাবছে

ভারতের বিতর্কিত কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে আন্দোলনরত কৃষক নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে অচলাবস্থা কাটানোর চেষ্টা ব্যর্থ হয় ভারতীয় সরকারের।  বৃহস্পতিবারের ওই আলোচনায় কৃষক নেতারা তাদের কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে স্থির ছিলেন। এমনকি ৭ ঘণ্টাব্যাপী ওই আলোচনায় গিয়ে কোনো খাবার বা পানি স্পর্শও করেননি তারা।

শনিবার থেকে দেশব্যাপী বিক্ষোভের ডাক দিয়েছেন কৃষকরা। দিল্লির প্রবেশপথগুলোতে অবস্থান করায় এখনও বন্ধ রয়েছে মহাসড়ক।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবারের ওই সভায় কৃষকদের প্রতিনিধিরা বিতর্কিত আইনটির বিরুদ্ধে ৩৯ দফা প্রয়োগ করে।  পরে সরকারের পক্ষ থেকেও তাদের কথা বলা হয়।

কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং টোমার বলেন, সরকারের কোনো অহংবোধ নেই। কৃষকদের তুলে আনা বিষয়গুলো নিয়ে খোলামনে আলোচনা চলছে।  শুক্রবার কৃষকদের বলা বিষয়গুলো নিয়ে সরকারের সঙ্গে আবার আলোচনা হবে বলেও জানান তিনি।

বিজ্ঞাপন

তবে কৃষক ইউনিয়নের পক্ষ থেকে বলা হয়, আমাদের দিক থেকে আলোচনা শেষ। সরকার সমাধান না দিলে আমাদের নেতারা আর কোনো আলোচনায় বসবে না।

আন্দোলনে হরিয়ানা ও পাঞ্জাবের কৃষকদের সমর্থনে যুক্ত হয়েছে মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান, উত্তর প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, মহারাষ্ট্র ও অন্ধ্র প্রদেশের কৃষকরা।

নতুন আইনে ভারতে কৃষিপণ্য বিক্রয়, মূল্য নির্ধারণ ও গুদামজাত করণের নিয়মে পরিবর্তন আসবে। যে নিয়ম ভারতের কৃষকদের গত কয়েক দশক ধরে মুক্ত বাজার থেকে রক্ষা করেছে।

কৃষকরা চাইলে যে কারও কাছে তাদের পণ্য বিক্রি করতে পারবে। আগে যা কেবলমাত্র সরকার অনুমোদিত এজেন্টদের কাছেই বিক্রি করতে হতো।

নতুন আইনে কৃষকদের স্বার্থে আঘাত আসবে আশঙ্কা থেকেই বিক্ষোভ চালিয়ে যাচ্ছে কৃষকরা।