চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
Partex Cable

নিজ এলাকা টুঙ্গিপাড়ায় ‘জয় বাংলা’ শেষ করলেন কাজী হায়াৎ

Nagod
Bkash July

কিংবদন্তি চলচ্চিত্র কাজী হায়াত তার ৫১তম ছবি ‘জয় বাংলা’র শুটিং শেষ করলেন গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায়। এর আগে ঢাকার এফডিসি, মধুর ক্যান্টিংসহ বেশ কিছু লোকেশনে ছবিটির শুটিং করেন বর্ষিয়ান এ চিত্রপরিচালক। এবার শেষ লটের শুটিং নিজ এলাকায় শেষ করে ঢাকায় ফিরেছেন তিনি।

Reneta June

কাজী হায়াতের নিজ এলাকা গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে তিনি এবারই প্রথম সেখানে শুটিং করলেন। নিজ এলাকায় শুটিংয়ের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে খানিকটা আবেগ প্রকাশ করলেন ‘দাঙ্গা’, ‘আম্মাজান’, ‘বীর’ ছবির পরিচালক কাজী হায়াৎ।

তিনি বলেন, চোখের সামনে ছোটবেলার হাজার স্মৃতি ভাসছে। যেখানে শুটিং করছি এসব জায়গা আমার চির চেনা। নিজের জন্মস্থানে আমার শুটিংয়ের ইচ্ছা ছিল দীর্ঘদিনের। আগেও কয়েকটি ছবির শুটিংয়ের পরিকল্পনা করেছিলাম কিন্তু শেষ পর্যন্ত কোনোটিরই হয়নি। এবার আমার আশা পূর্ণ হলো। শুটিং করতে গিয়ে অন্যরকম এক প্রশান্তি পেয়েছি।

১৯৬৯ সালের পূর্বের সময় থেকে একাত্তরের ১৬ ডিসেম্বরের দিন পর্যন্ত সময় উঠে আসবে ‘জয় বাংলা’ ছবিতে। টুঙ্গিপাড়া চলচ্চিত্রের ব্যানারে এটি প্রযোজনা করছেন মিঠু শিকদার। ২০২০-২১ অর্থবছরে সাধারণ শাখায় ৬৫ লাখ টাকা অনুদান পেয়েছে ‘জয় বাংলা’। লেখক, শিক্ষক মুনতাসির মামুনের ‘জয় বাংলা’ উপন্যাস অবলম্বনে ছবিটি নির্মিত হচ্ছে।

ছবিটি নিয়ে দারুণ আশাবাদী হয়ে কাজী হায়াৎ বলেন, আমি সবসময় নিজের ছবিতে দেশ ও জাতির নিপীড়নের কথা তুলে ধরেছি। প্রতিটি ছবিতেই যুবকদের সত্যের পথ দেখিয়েছি। এ ছবিটিও তার ব্যতিক্রম নয়। আমি মন দিয়ে ছবিটি নির্মাণ করছি। একটি গানের শুটিং শুটিং বাদে পুরো কাজ শেষ হয়েছে। পরিকল্পনা আছে আগামী বিজয় দিবসে ছবিটি মুক্তি দেয়ার।

‘জয় বাংলা’র বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করছেন বাপ্পী চৌধুরী, জাহারা মিতু, শ্রাবণ শাহ, নাদের চৌধুরী, রেবেকা, রাতুল প্রমুখ।

শ্রাবণ শাহ বলেন, তিনদিন টুঙ্গিপাড়া এলাকায় শুটিং করে মঙ্গলবার রাতে ঢাকায় ফিরেছি। হায়াৎ স্যার নিজেও এই লটে অভিনয় করেছেন। ছোট থেকে তার সিনেমা দেখে বড় হয়েছি। সেই মানুষটার পরিচালনায় কাজ করতে পেরে সত্যি সৌভাগ্যবান মনে করছি।

BSH
Bellow Post-Green View