চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নারায়ণগঞ্জে এবার সিনেপ্লেক্স নির্মাণের পরিকল্পনা

নারায়ণগঞ্জে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা করলো ৩৫ আসন বিশিষ্ট আধুনিক প্রেক্ষাগৃহ ‘সিনেস্কোপ’…

নারায়ণগঞ্জে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা করলো ৩৫ আসন বিশিষ্ট আধুনিক প্রেক্ষাগৃহ ‘সিনেস্কোপ’। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এসে আরো বড় পরিসরে সিনেপ্লেক্স নির্মাণের ঘোষণা দিলেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী।

শুক্রবার (২০ সেপ্টেম্বর) থেকে নারায়ণগঞ্জে যাত্রা শুর করলো ‘সিনেস্কোপ’। এ উপলক্ষ্যে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন ও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সিনেমাকার যৌথ উদ্যোগে সপ্তাহব্যাপী ‘বাংলাদেশি চলচ্চিত্র উৎসব’-এর আয়োজন করেছে।

বিজ্ঞাপন

আধুনিক প্রেক্ষাগৃহ ‘সিনেস্কোপ’-এর উদ্বোধন করেন ‘সূর্যদীঘল বাড়ী’র পরিচালক মসিহউদ্দিন শাকের।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নাসিক-এর মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী। অনুষ্ঠানে এসে শিগগির সিনেপ্লেক্স নির্মাণেরও ঘোষণা দেন মেয়র।

সিনেপ্লেক্স নির্মাণের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা জানিয়ে আইভী তার বক্তব্যে বলেন, একসাথে বন্ধুরা সবাই সিনেমা দেখতে যাওয়া, এক সাথে ফ্যামিলি নিয়ে যাওয়া সেই সব কিছুই মিস করে আমাদের নতুন প্রজন্ম। আজকের এ উদ্যোগ আয়োজন বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য করেছি। যদিও জায়গাটা খুবই ছোট। মাত্র ৩৫ জনের। তবে আমরা শুরু করলাম এটা দিয়ে। আমাদের কিন্তু ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা আরেকটু বড়। মন্ডলপাড়ায় ‘সিটি সেন্টার’ নামে প্রায় ২৫তলা একটি বিল্ডিং করতে যাচ্ছি। সেখানেও একটি সিনেকমপ্লেক্স থাকবে।

‘সিনেস্কোপ’-এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, উৎসবের আয়োজক চলচ্চিত্র প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সিনেমাকার এর প্রতিষ্ঠাতা, স্থপতি ও চলচ্চিত্র নির্মাতা মোহাম্মদ নূরুজ্জামান ডালিম, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের আহ্বায়ক রফিউর রাব্বি, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এফএম এহতেশামুল হক, নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি ভাবনী শংকর রায়, সাধারণ সম্পাদক শাহীন মাহমুদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক অমল আকাশ প্রমুখ।

সিনেস্কোপ-এর উদ্যোক্তা নূরুজ্জামান চ্যানেল আইঅনলাইনকে বলেন, নারায়ণগঞ্জ শহরের ‘আলী আহাম্মদ চুনকা নগর পাঠাগার ও মিলনায়তন’ ভবনে তৈরি হওয়া আধুনিক প্রেক্ষাগৃহ ‘সিনেস্কোপ-এ সাত দিনব্যাপী দেখানো হবে বাংলাদেশের আলোচিত ও ধ্রুপদী মোট ১৪টি সিনেমা।

সিনেমাগুলো হলো-সুজন সখী, গোলাপী এখন ট্রেনে, অশিক্ষিত, সূর্য দীঘল বাড়ী, পুরস্কার, ছুটির ঘণ্টা, ঘুড্ডি, দীপু নাম্বার টু, মাটির ময়না, স্বপ্নডানায়, ডুব সাঁতার, অজ্ঞাতনামা, জালালের গল্প এবং মাটির প্রজার দেশে। ২০ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া উৎসবটি চলবে ২৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

উৎসবের সাতদিন প্রতিটি ছবির দুটি করে প্রদর্শনী হবে। বেলা ১১টা, ২টা, ৫টা ও রাত ৮টায় হবে প্রদর্শনী। ছবি দেখার জন্য টিকিট কাটতে হবে দর্শকদের।

Bellow Post-Green View