চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নাটক, গান, কবিতায় দিনব্যাপী অমর একুশ

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে দিনব্যাপী বিশেষ অনুষ্ঠানমালা প্রচারিত হবে বাংলাদেশ টেলিভিশন বিটিভিতে…

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে দিনব্যাপী বিশেষ অনুষ্ঠানমালা প্রচারিত হবে বাংলাদেশ টেলিভিশন বিটিভিতে। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার থেকে একুশের প্রভাতফেরী সরাসরি সম্প্রচার করা হবে সকাল সাড়ে ৬ টায়।

বিশেষ অনুষ্ঠান ‘একুশ মানে মাথা নত না করা’। উপস্থাপনা করবেন সৌমিত্র শেখর। আলোচনায় অংশ নেবেন রফিকুল ইসলাম ও সৈয়দ হাসান ইমাম। আবৃত্তি করবেন সংগীতা চৌধুরী। প্রচারিত হবে দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট আয়োজিত অনুষ্ঠান সরাসরি সম্প্রচার করা হবে বিকাল ৩টায়। প্রান্তিক শিল্পীদের নিয়ে সংগীতানুষ্ঠান ‘একুশের গান’। দেশের খ্যাতনামা গীতিকারদের লেখা ৮টি মৌলিক গান দিয়ে সাজানো হয়েছে ‘একুশের গান’ অনুষ্ঠানটি। সংগীত পরিবেশ করবেন সদ্য তালিকাভুক্ত প্রান্তিক পর্যায়ের ৮ জন উদীয়মান শিল্পী। সুর ও সংগীত পরিচালক হিসেবে থাকছেন মকসুদ জামিল মিন্টু। উপস্থাপনা আফরিন অথৈ। প্রচারিত হবে এই দিন সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিটে।

বিজ্ঞাপন

একুশে ফেব্রুয়ারির কবিতা নিয়ে বিশিষ্ট কবিদের অংশগ্রহণে আড্ডামূলক অনুষ্ঠান ‘বাংলা আমার পরিচয়’। কবি নুরুল হুদার উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানটি প্রযোজনা করেছেন মাহফুজার রহমান। অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন, কবি কামাল চৌধুরী, আসাদ মান্নান, হাবিবুল্লাহ সিরাজী, তারিক সুজাত, রোকেয়া রুবি খাতুন ও জাহিদ মোস্তফা। প্রচারিত হবে সন্ধ্যা ৭টায়।

মুক্তিযুদ্ধ ও ভাষা আন্দোলনের চেতনাকে উপজীব্য করে রচিত একুশের বিশেষ নাটক ‘আন্ধারকাঠির উজ্জ্বল’। উজ্জ্বল যিনি মুক্তিযুদ্ধ ও ভাষা আন্দোলনের চেতনাকে ধারণ করে, অন্যদিকে তারই বন্ধু মুকিত সেই চেতনা বিরোধী। দুই বন্ধুর মধ্যে যুদ্ধটা শুরু হয় ভাষা আন্দোলন দিয়ে, শেষ হয়েছিলো স্বাধীনতা যুদ্ধে। কিন্তু আজও সেই যুদ্ধ চলছে। যে যুদ্ধে জয়ী হবে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাই। নাটকে অভিনয় করেছেন মাহমুদ সাজ্জাদ, শর্মিলী আহমেদ, শহীদুজ্জামান সেলিম, সায়েম সামাদ, সঙ্গীতা চৌধুরী, তাহিয়া হোসেন, সুষ্ময় সাহা। প্রচারিত হবে ২১ ফেব্রুয়ারি রাত ৯টায়।

বিশেষ আলেখ্যানুষ্ঠান ‘ইতিহাস কথা কয়’ প্রচারিত হবে ২১ ফেব্রুয়ারি রাত ১০ টা ২০ মিনিটে। অনুষ্ঠানটিতে ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনকে তুলে ধরা হয়েছে। যেখানে মধুসুদন (মধুদা) তখনকার মধুর ক্যান্টিনের মালিক, যিনি বর্তমান সময়ে একটি চায়ের দোকানে বসে ভাষা আন্দোলনের ঘটনাটি বর্ণনা করছেন। বর্ণনার মাঝে গান, নৃত্য এবং কবর নাটকের কিছু অংশ তুলে ধরা হয়েছে। ভাষা আন্দোলনে বঙ্গবন্ধুর ভূমিকা এই আলেখ্যানুষ্ঠানের মাধ্যমেই তুলে ধরা হয়েছে। নাটকটিতে অভিনয় করেছেন-শাহাদাৎ হোসেন, রমিজ রাজু, সাজ্জাদ সাজু, দিপা প্রমুখ। নৃত্যে অংশ নিয়েছেন ওর্য়াদা রিহাব ও তার দল। সংগীত পরিবেশনা করেছেন অপু আমান, শারমিন, লায়লা, মনির, পারভেজ, স্বরলিপি, রাসেল শেফালী। আলোচনায় অংশ নিয়েছেন অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম ও অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন। প্রযোজনা করেছেন আবু তৌহিদ।

একুশের বিশেষ গান নিয়ে অনুষ্ঠান ‘ভাষার গান’ প্রচারিত হবে দিনব্যাপী বিভিন্ন অনুষ্ঠানের ফাাঁকে-ফাঁকে। গান পরিবেশন করবেন রেজওয়ান চৌধুরী বন্যা, তিমির নন্দী, রফিকুল আলম, প্রিয়াংকা গোপ, স্বরলিপি, বিমান চন্দ্র বিশ্বাস, সাব্বির, রাজীব, প্রিয়াংকা বিশ্বাস ও স্মরণ। এছাড়াও প্রচারিত হবে ভাষা বিশেষজ্ঞ, অধ্যাপক, গীতিকার, কবি, সাহিত্যিক ও ভাষা তত্ত্ববিদগণের উক্তি, বাণী ও প্রচরণ আলেখনের সাহায্যে উপস্থাপন ‘ভাষা বিষয়ক গ্রাফিক্স কোটেশন’।

বিজ্ঞাপন