চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘নতুন জীবন’ পেয়ে সৌরভ বললেন ধন্যবাদ

বুধবারই জানা গিয়েছিল, বৃহস্পতিবার হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাচ্ছেন সৌরভ গাঙ্গুলি। হাসপাতাল আঙ্গিনা থেকে তার বাড়ির সামনে পর্যন্ত উপচে পড়লেন ভক্তরা। হাসপাতাল থেকে বের হয়ে বিসিসিআইয়ের বর্তমান প্রেসিডেন্ট ও ভারতের সাবেক অধিনায়ক নতুন জীবনের জন্য জানালেন ধন্যবাদ।

গত শনিবার সকালে জিম করার সময় বুকে এবং পিঠে ব্যথা অনুভব করেন সৌরভ। দক্ষিণ কলকাতার উডল্যান্ড হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। সেখানে চিকিৎসকরা জানান, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন তিনি। পরীক্ষায় দেখা যায়, হৃৎপিণ্ডে রক্ত সরবরাহকারী তিনটি ধমনীতে ‘ব্লকেজ’ রয়েছে সৌরভের।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

পরে অ্যানজিওপ্লাস্টি করে তার হৃদযন্ত্রের ধমনীতে একটি স্টেন্ট বসানো হয়। পর্যায়ক্রমে আরও দুটো স্টেন্ট বসানো হবে। তবে বাইপাস সার্জারির প্রয়োজন হবে না বলে জানান চিকিৎসকরা।

বিজ্ঞাপন

হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফেরার পথে সেই চিকিৎসকদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন সৌরভ। বাড়ি ফিরে আরও একবার বেরিয়ে সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘আমি ভাল আছি। জীবন ফিরে পেলাম। ধন্যবাদ।’

সৌরভ বাড়ি ফেরার পর হাসপাতালের প্রধান নির্বাহী রূপালি বসু বলেন, ‘আমরা ভীষণ খুশি।’ সৌরভের শারীরিক অবস্থার বিষয়ে রূপালি বলেন, ‘আরও দু’টো ব্লকেজ রয়েছে। তবে সেটা খুবই মাইনর। পরে কোনো সময় সেটার চিকিৎসা করিয়ে নিলেই হবে।’

আপাতত দু’সপ্তাহ চিকিৎসকদের পরামর্শমতো কঠোর নিয়মকানুন মেনে চলতে হবে ভারতের সাবেক অধিনায়ককে। শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষাও চলবে। হাসপাতাল সূত্র বলছে, আপাতত সৌরভের রক্তচাপ, কোলেস্টেরল, থাইরয়েড এবং অন্যান্য শারীরিক মাপকাঠি নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রয়েছে। কিন্তু স্টেন্ট বসানোর পরে সেই পরিস্থিতির কোনো পরিবর্তন হচ্ছে কিনা, তা নিয়মিত ব্যবধানে পরীক্ষা করে দেখা হবে।

সৌরভের শারীরিক পরিস্থিতির বিষয়ে নিয়মিত শলাপরামর্শ চালিয়ে যাবেন মেডিকেল বোর্ডের সদস্যরা। দু’সপ্তাহ পর তার পরবর্তী চিকিৎসার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। এই ১৫ দিন লাল মাংস, অতিরিক্ত ফ্যাট জাতীয় খাবার খাওয়া নিষেধ। হাঁটা চলাও করতে হবে নিয়ন্ত্রিতভাবে। বেশিরভাগ সময়ই বিশ্রামে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকেরা।