চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দূষণ বাড়লেও ‘পাল্টাবে না’ দিল্লি ম্যাচের সূচি

বায়ুদূষণের মাত্রা বিপজ্জনক হিসেবে চিহ্নিত হলেও বাংলাদেশ-ভারত সিরিজের প্রথম টি-টুয়েন্টি সূচি অনুযায়ীই হবে। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) সূত্রে টাইমস অব ইন্ডিয়া বলছে, অবস্থা যাই হোক না কেনো, ম্যাচ সূচি পাল্টানোর কোনো সম্ভাবনা নেই।

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লি বায়ুদূষণে চলতি বছর সবচেয়ে খারাপ অবস্থায় পৌঁছেছে। দূষণের মাত্রাকে অত্যন্ত বিপজ্জনক হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। সঙ্গে আশঙ্কা করা হচ্ছে, দিওয়ালি উৎসবের কারণে দূষণের মাত্রা আরও বাড়বে। তাতে শঙ্কার মাঝে বাংলাদেশ-ভারত সিরিজের প্রথম টি-টুয়েন্টি। ৩ নভেম্বর দিল্লির অরুণ জেটলি স্টেডিয়ামে হবে ম্যাচটি।

বিজ্ঞাপন

বিসিসিআই’র সূত্রটি টাইমস অব ইন্ডিয়াকে বলেছে, ‘আমরা দিল্লি দূষণ নিয়ন্ত্রণ কমিটির কাছ থেকে অনুমতি নিয়েছিলাম এবং তারা ৩ নভেম্বরকে পরিষ্কার দিন হিসেবে নিশ্চয়তা দিয়েছে, তাই আমরা তাদের পরামর্শের পরেই দিল্লিকে ভেন্যু ঠিক করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

অবস্থা যদি আরও খারাপ হয় তাহলে কী হবে? টিওআই’র এমন প্রশ্নের জবাবে বিসিসিআই সূত্র জানায়, ‘এখন সব ঠিকঠাক হয়ে গেছে, তাই আমি পরিবর্তনের কোনো সম্ভাবনা দেখি না।’

বিশ্বব্যাপী শহরগুলোতে বায়ুদূষণের মাত্রা পরিমাপ করা ‘এয়ার কোয়ালিটি ইন্ডেক্সের (একিউআই)’ মান অনুযায়ী, ০-৫০ ভালো বলে বিবেচিত হয়, ৫১-১০০ সন্তোষজনক, ১০১-২০০ মাঝারি, ২০১-৩০০ খারাপ এবং ৩০১-৪০০ খুবই খারাপ অবস্থা। ৪০০’র উপরে যেকোনো অবস্থাকে গুরুতর হিসাবে বিবেচনা করা হয়, যা মারাত্মক স্বাস্থ্য সমস্যার কারণ হতে পারে।

বিজ্ঞাপন

একিউআই এক প্রতিবেদনে বলেছে, গত শুক্রবার নয়াদিল্লির বায়ুদূষণের মাত্রা ৩৮৮ ছুঁয়েছে। যেখানে এর নিরাপদ মাত্রা হচ্ছে ৬০।

রোববার দিওয়ালির রাতের পর সোমবার সকালে দিল্লির দূষণের অবস্থা আরও খারাপ হয়েছে। একিউআই এবং ওয়েদার ফোরকাস্টিং এন্ড রিসার্চের তথ্যানুযায়ী, দিওয়ালির পর দিল্লির যেসব এলাকায় দূষণের মাত্রা সবচেয়ে বেশি তার মধ্যে স্টেডিয়াম এলাকাও পড়েছে।

ভারতের জাতীয় দূষণ নিয়ন্ত্রক বোর্ডের এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স অনুযায়ী, সোমবার সকাল ১১টা পর্যন্ত দিল্লির আনন্দ বিহারের এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স ছিল ৩৬২। গত বছরে যার পরিমাণ ছিল ৬৪২। ২০১৭ সালে দিল্লির আনন্দ বিহারের এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স ছিল ৩৬৭।

ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব ট্রপিকাল মেট্রলজির সূত্র অনুযায়ী এবং আর্থ সায়েন্সের গবেষণায় দেখা গেছে, গত তিন বছরে দিল্লিতে দিওয়ালির আগে এবং পরে বাতাসে এই বছরের মতো এত তীব্র দূষণ ছিল না।

২০১৭তে ভারত-শ্রীলঙ্কা টেস্ট ম্যাচের খেলা শুরুর কিছুক্ষণের মধ্যেই লঙ্কান খেলোয়াড়দের মুখ ঢাকতে হয় ‘মাস্কে’। দিল্লির বায়ুদূষণ সেদিন অসহনীয় হয়ে উঠেছিল শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটারদের কাছে। লঙ্কানদের মুখে ‘মাস্ক’ চরম বিব্রতকর অবস্থায় ফেলেছিল বিসিসিআইকে।

৩ নভেম্বর দিল্লির অরুণ জেটলি স্টেডিয়ামে শুরু হবে বাংলাদেশ-ভারতের টি-টুয়েন্টি সিরিজ। ৭ ও ১০ নভেম্বর বাকি দুই ম্যাচ। পরে ১৪ নভেম্বর ইন্দোরে শুরু হবে প্রথম টেস্ট। ২২ নভেম্বর কলকাতায় শুরু সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট।