চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ঢাবি ছাত্র রাজিব হত্যা: প্রধান আসামি জিহাদ গ্রেপ্তার

হত্যার পাঁচদিন পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সাবেক ছাত্র ও জহুরুল হক হল শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি মেহেদী মোস্তফা রাজিব হত্যা মামলার প্রধান আসামী জিহাদকে গ্রেপ্তার করেছে ভূঞাপুর থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে তিনটার দিকে টাঙ্গাইলের সন্তোষ এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। ভূঞাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.রাশিদুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বিজ্ঞাপন

তিনি জানান, ঘটনার পর থেকেই পলাতক ছিল জিহাদ ও তার পরিবারের লোকজন। তাদের গ্রেপ্তারে মাঠে নামে পুলিশের একাধিক টিম। ঘটনার পর থেকেই মোবাইল ফোন ব্যবহার না করে সে দেশের বিভিন্ন জেলায় অবস্থা করেছে। সর্বশেষ সিলেটে অবস্থান করার পর টাঙ্গাইলে আসে। পরে বেলা সাড়ে তিনটার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাকে টাঙ্গাইল সদরের সন্তোষ এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আগামীকাল সকালে আদালতে প্রেরণ করা হবে।

বিজ্ঞাপন

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার গাড়াবাড়ি গ্রামের গোলাম মোস্তফা দুলালের ছেলে রাজিব।

গত বৃহস্পতিবার দুপুরে তার মায়ের সাথে আম পাড়াকে কেন্দ্র করে চাচাতো ভাই জিহাদের সামান্য কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে জিহাদ ক্ষিপ্ত হয়ে ঘরে থাকা ছুরি দিয়ে তার মাকে আঘাত করতে গেলে বাঁধা দেয় রাজিব। এসময় রাজিব কিছু বুঝে উঠার আগেই জিহাদ উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করতে থাকে রাজিবকে। এতে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে।

পরে দ্রুত তাকে প্রথমে ভূঞাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকালে তার মৃত্যু হয়।

এ নির্মম হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় রাজিবের বাবা গোলাম মোস্তফা দুলাল বাদি হয়ে জিহাদকে প্রধান আসামি করে আরো তিনজনের নাম উল্লেখ্যসহ মোট চারজনের বিরুদ্ধে ভূঞাপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।