চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

টুইটারকে ১২০০ অ্যাকাউন্ট বন্ধ করতে বলল ভারত সরকার

অশান্তি ছড়াতে পারে এমন প্রায় ১২০০ অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার জন্য টুইটারকে চিঠি পাঠিয়েছে ভারত সরকার। তিনদিন আগে সরকারের পক্ষ থেকে ১১৭৮ অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার তালিকা দেওয়া হয় টুইটারকে। এর আগে একটি ‘উস্কানিমূলক’ হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করার জন্য ২৫৭টি অ্যাকাউন্ট বন্ধ করতে বলেছিল তারা। সাময়িক ভাবে সেই সিদ্ধান্ত মেনে নিলেও তারপরে সেই অ্যাকাউন্টগুলিকে আনব্লক করার সিদ্ধান্ত নেয় টুইটার। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই টুইটারের সঙ্গে ভারত সরকারের সংঘাত চলছে।

হিন্দুস্থান টাইমস এ তথ্য জানিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

হিন্দুস্থান টাইমস সূত্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, তিনদিন আগে সরকারের পক্ষ থেকে ১১৭৮ অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার তালিকা দেওয়া হয় টুইটারকে। এখনও তারা সেই কাজ করেছে কিনা জানা যায় নি। হিন্দুস্তান টাইমস প্রতিক্রিয়া চাইলেও ভারতীয় টুইটার কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে কিছু বলা হয়নি। সরকারি সূত্রে বলা হয়েছে, চিহ্নিত অ্যাকাউন্টগুলির মধ্যে বেশ কিছু বট, অন্যগুলি ভিন দেশীদের নির্দেশে চলছে। অনেক অ্যাকাউন্টই খলিস্তানি সমর্থকদের বা পাকিস্তানিরা চালাচ্ছে বিদেশ থেকে বলে নিরাপত্তা সংস্থাগুলি চিহ্নিত করেছে বলে তাদের দাবি। এছাড়াও অনেক বট অ্যাকাউন্ট করছে যারা কপি পেস্ট করে কৃষি আন্দোলন সম্বন্ধীয় ভুল তথ্য ছড়াচ্ছে বলে সরকারি কর্তাদের দাবি।

ভারতের আইটি আইনের ৬৯ (এ) ধারায় নির্দেশিকা দেওয়া হয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষার কারণ দর্শিয়ে। এর আগে কৃষক গণহত্যার অভিযোগ সম্পর্কিত টুইট করা অ্যাকাউন্ট ডিলিট না করার জন্য সরকারের রোষের মুখে পড়ে টুইটার। কেন্দ্র বলে যে টুইটারের কোনও অধিকার নিজের মতো আইনের ব্যাখ্যা করার।

ভারতীয় কৃষক আন্দোলন সম্পর্কিত বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সেলিব্রিটির টুইট লাইক করেছেন সংস্থার সিইও জ্যাক ডর্সি। তাই ভারত সরকারের কথা যেভাবে অমান্য করছে টুইটার, সেই নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। সরকারের সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করে আদালতেও যায়নি তারা। এরমধ্যেই টুইটার ইন্ডিয়ার পলিসি হেড মহিমা কৌল পদত্যাগ করেছেন। সব মিলিয়ে উঠছে নানান প্রশ্ন।