চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

জোন্সের মৃত্যুতে শোকে ভাসছে ক্রিকেট দুনিয়া

৫৯ বছর বয়সে সবাইকে কাঁদিয়ে চলে গেছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক ব্যাটসম্যান ও ধারাভাষ্যকার ডিন জোন্স। মুম্বাইয়ের একটি সাত তারকা হোটেলে নিবাস গড়ে আইপিএলের জন্য ধারাভাষ্য দিতেন, বৃহস্পতিবার সকালে সেখানেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন কিংবদন্তি সাবেক ব্যাটসম্যান।

অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ৫২ টেস্টে ৪৬.৫৫ গড়ে ১১ সেঞ্চুরিতে ৩,৬৩১ রান এবং ১৬৪ ওয়ানডেতে ৭ সেঞ্চুরি ৪৬ হাফসেঞ্চুরিতে ৬,০০৮ রানই বুঝিয়ে দেয় কী মাপের ব্যাটিং ভরসা ছিলেন জোন্স। তার চলে যাওয়া যে ক্রিকেট দুনিয়ায় মস্ত এক শূন্যতা তৈরি করল সেটি টুইটারে সাবেক-বর্তমান ক্রিকেটারদের মাতমে ফুটে উঠছে।

বিজ্ঞাপন

অস্ট্রেলিয়ার ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার যেমন লিখেছেন, ‘আমার এই খবরটা বিশ্বাসই হচ্ছে না। ভীষণ কষ্ট হচ্ছে। তোমাকে ভীষণ মিস করবো ডিনো, শান্তিতে ঘুমাও।’

বিজ্ঞাপন

পাকিস্তানি পেসার হাসান আলির টুইট, ‘২০২০, এরচেয়ে বেশি খারাপ হতে পারে না। সত্যিই খুব কষ্ট পাচ্ছি। ডিন জোন্স একজন কিংবদন্তি, এরচেয়ে বড় মানুষ।’

বিজ্ঞাপন

হরভজন সিংয়ের কণ্ঠে আবেগটা এমন, ‘খুব তাড়া ছিল প্রফেসর ডিনো। পরিবারকে সমবেদনা। খবরটা শুনে কষ্ট পেলাম।’

জোন্সের সাবেক সতীর্থ ও অস্ট্রেলিয়ান কোচ টম মুডি লিখেছেন, ‘আমার প্রিয় বন্ধু ও সতীর্থের এমন বিদায়ে বাকরুদ্ধ। ক্রিকেট বিশ্ব তোমাকে ভীষণ মিস করবে। জেন(জোন্সের স্ত্রী) ও মেয়েদের প্রতি সমবেদনা।’

ভারত ও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর অধিনায়ক বিরাট কোহলি শোকবার্তায় লিখেছেন, ‘ডিন জোন্সের হঠাৎ মৃত্যুর খবরে স্তব্ধ হয়ে গেছি। তার পরিবারকে সাহসী হওয়ার অনুরোধ।’

সবচেয়ে কঠিন কথাটা বলেছেন পাকিস্তানের সাবেক ব্যাটসম্যান ও ধারাভাষ্যকার রমিজ রাজা, ‘ডিনো, তোমার মতো একজন মানুষ একা, নিঃসঙ্গ অবস্থায় হোটেলে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করেছে- এমন মৃত্যুকেই আমরা ধারাভাষ্যকাররা সবচেয়ে বেশি ভয় পাই; একা, নিঃসঙ্গ। শান্তিতে থেকো বন্ধু।’