চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

চার দেশ ঘুরে ২৬ শিরোপা

ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর ট্রফির আলমারিটা দিন দিন বড় হচ্ছে। বুধবার রাতে সেখানে জায়গা নিয়েছে আরও একটি শিরোপা। নিজে গোল করেই জুভেন্টাসকে ইতালিয়ান সুপারকোপা জিতিয়েছেন পর্তুগিজ তারকা। এসি মিলানের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের জয়টা রোনালদোর করা একমাত্র গোলেই আসে।

রিয়াল মাদ্রিদে থাকতে সম্ভাব্য সব শিরোপাই জিতেছেন রোনালদো। চলতি মৌসুমেই স্পেন ছেড়ে ইতালিতে নতুন চ্যালেঞ্জ নেন এবং তুরিনের ক্লাবে যোগ দিয়ে মৌসুমের শুরুতে প্রথম সুযোগেই ট্রফি জিতলেন।

ইতালিয়ান সুপারকোপা জয়ের পর রোনালদোর আলমারিতে এখন ট্রফির সংখ্যা দাঁড়াল ২৬টিতে। চারটি দেশের ক্লাবে খেলে এই ট্রফিগুলো জেতেন সিআর সেভেন। নিজ দেশ পর্তুগাল, ইংল্যান্ড, স্পেনের পর ইতালিতে শিরোপা জিতলেন তিনি।

১৭ বছর বয়সে পর্তুগিজ সুপার কাপ দিয়ে শুরু। ২০০২ সালে স্পোর্টিং লিসবনের হয়ে জেতা ওই ম্যাচে অবশ্য বেঞ্চে বসে থাকতে হয়েছিল রোনালদোকে। তার অভিষেকের তিন ম্যাচ পরের ওই ফাইনালে লেওক্সের বিপক্ষে ৫-১ গোলে জিতেছিল লিসবন।

পর্তুগিজ সুপার কাপ জয়ের কিছুদিন পরই রোনালদো পাড়ি দেন ইংল্যান্ডে। ওল্ড ট্রাফোর্ডে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে ৯টি শিরোপা জেতে। তিনটি ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের সঙ্গে দুটি লিগ কাপ, একটি এফএ কাপ, একটি কমিউনিটি শিল্ড, একটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ও একটি ক্লাব বিশ্বকাপ।

ম্যানইউ থেকে রিয়ালে যোগ দিয়ে প্রথম বছর ট্রফিহীন থাকতে হয় রোনালদোকে। পরে অবশ্য গুণে গুণে ১৫টি শিরোপা জেতেন বার্নাব্যুতে। ৯ মৌসুমে রিয়ালের জার্সিতে দুটি লা লিগা, দুটি কোপা ডেল রে, দুটি স্প্যানিশ সুপার কাপ, তিনটি ক্লাব বিশ্বকাপ এবং চারটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতে বার্নাব্যুর স্বর্ণযুগের সাক্ষী হন। এরমধ্যে আবার পরপর তিনবার জেতেন চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। লস ব্লাঙ্কোসদের বিখ্যাত সাদা জার্সির সময়টাতে চারবার ব্যালন ডি’অর উঁচিয়ে ধরেন।

ইতালিয়ান সুপার কাপে নতুন ক্লাব জুভেন্টাসকে গোল করে শিরোপা জেতান রোনালদো। নিজের ছন্দে আছেন অন্য প্রতিযোগিতাগুলোতেও। এরইমধ্যে চলতি মৌসুমে ১৯ গোল করে ফেলেছেন। নামের পাশে ট্রফি সংখ্যা ২৬ লেখা হয়ে গেলেও তৃপ্ত নন রোনালদো, কারণ তিনি সবসময়ই আরও ট্রফি চান।