চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘চাইলে আপনারা ড্রেসিংরুমে আসতে পারেন’

চোট কাটিয়ে পুরোপুরি ফিট এখন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। কাঁধের ব্যথা থেকে মুক্তি মিলেছে। রোববার মিরপুরের একাডেমি মাঠের নেটে দুই সেশন ব্যাটিং করার পর অস্বস্তি ছাড়াই বোলিং করলেন পাঁচ ওভার। পরে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে দিলেন নানা প্রশ্নের উত্তর। উঠে এল অপ্রিয় একটি প্রসঙ্গও।

মাহমুদউল্লাহ চাইলে এড়িয়ে যেতে পারতেন। সে ‘সুযোগ’ রেখেছিলেন প্রশ্নকর্তা। তবে ভুল বোঝাবুঝি যেন ডালপালা মেলতে না পারে সেটি ভেবেই জবাব দিয়েছেন তিনি। সতীর্থ ক্রিকেটারদের সঙ্গে কোনো ঝামেলা নেই সে দাবী করেছেন। সাংবাদিকদের উদ্দেশে বলেছেন, ‘চাইলে আপনারা ড্রেসিংরুমে আসতে পারেন, আমরা কীভাবে একজন আরেকজনের সঙ্গে কথা বলি। একজন আরেকজনের সঙ্গে কতটুক মজা করি, কত ভালোভাবে সময় কাটাই দেখতে।’

বিজ্ঞাপন

বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার পর ভারতীয় ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ক্রিকবাজ এক প্রতিবেদনে সূত্রের বরাত দিয়ে জানায়, বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচের পর মাহমুদউল্লাহকে বাদ দিতে চেয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। প্রতিবেদনটিতে আরও বলা হয়, সেটির অসন্তোষে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে ড্রেসিংরুমে নাকি সতীর্থদের সঙ্গে বাজে ব্যবহার করেছেন মাহমুদউল্লাহ।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ দলের সিনিয়র এ ক্রিকেটারের দাবী, কোনো ক্রিকেটারের সঙ্গেই ঝামেলা নেই তার। জানান, জুনিয়র-সিনিয়র মিলে বাংলাদেশের ড্রেসিংরুম সুখী একটি পরিবার।

‘আমার মনে হয় ওই ধরণের ব্যাপার নিয়ে কথা না বলাই ভালো। কিছু কিছু জিনিস যেভাবে উপস্থাপন (সংবাদ) করা হয়েছে, ওভাবে সম্ভবত জিনিসটা হয়নি বা উপস্থাপনটা ভিন্নভাবে হতে পারত। আমি শুধু এতটুকুই বলতে চাই। মনে হয় না আমার সঙ্গে কোনো টিমমেটের গণ্ডগোল বা কোনো কিছু আছে। আমরা খুব ভালো বন্ধু। ড্রেসিংরুমে চাইলে আপনারা আসতে পারেন। আমরা কীভাবে একজন আরেকজনের সঙ্গে কথা বলি। একজন আরেকজনের সঙ্গে কতটুক মজা করি, কত ভালোভাবে সময় কাটাই।’

‘আপনাদের ওয়েলকাম জানাই, চাইলে এসে দেখতে পারেন। ছোট হোক বড় হোক আমরা কতটা ভালোভাবে থাকি। আমি শতভাগ চেষ্টা করে যাচ্ছি যেন সবার সঙ্গে ভালোভাবে থাকতে পারি এবং টিমের জন্য ভালো খেলতে পারি। সবসময় এ কথাটা বলি এবং আজও এটি বললাম, ভবিষ্যতেও বলব যদি সবকিছু ঠিক থাকে।’

Bellow Post-Green View