চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

গ্রাহকদের ওজন মেপে ক্ষমাপ্রার্থী চীনা রেস্তোরাঁ

রাতের খাবার খেতে আসা গ্রাহকদের ওজন মাপার পাশাপাশি সেই অনুপাতে খাবার অর্ডার নেওয়ার জন্য ক্ষমা চেয়েছে মধ্য চীনের একটি রেস্তোরাঁ।

খাদ্য অপচয় বন্ধে জাতীয় অভিযান চালুর পরে ওই রেস্তোরাঁয় এ নীতিটি চালু করা হয়েছিল।

বিজ্ঞাপন

দেশটির চাংশা শহরের সেই রেস্তোরাঁয় এই সপ্তাহ থেকে প্রবেশদ্বারে দুটি বড় আকারের ওজন মাপার স্কেল বসানো হয়। এরপরে ডিনার করতে আসাদের ওজন অনুসারে অ্যাপের মাধ্যমে মেন্যুতে থাকা খাবার বাছাই করতে পরামর্শ দেয়।

বিজ্ঞাপন

ওই রেস্তোরাঁর এমন নীতি চীনা সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়ে। সেই প্রতিষ্ঠানের  হ্যাশট্যাগগুলি সামাজিক প্ল্যাটফর্ম ওয়েইবোতে ত্রিশ কোটি বারের বেশি বার দেখা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

রেস্তোরাঁর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, জাতীয় “ক্লিন প্লেট ক্যাম্পেইন” এ ব্যাঘাত ঘটানোর জন্য “গভীরভাবে দুঃখিত”।

“আমাদের মূল উদ্দেশ্য ছিল খাবার অপচয় রোধ করা এবং স্বাস্থ্যকর উপায়ে খাবারের অর্ডার দেওয়া। কখনই গ্রাহকদের নিজেদের ওজন করতে বাধ্য করা কখনোই আমাদের উদ্দেশ্য ছিল না।

রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং এই সপ্তাহে জাতীয় খাদ্য অপচয় রোধের মাত্রাকে “জঘন্য এবং উদ্বেগজনক” বলে অভিহিত করে খাদ্য অপচয় রোধে একটি ক্যাম্পেইন পরিচালনা করেন।

শি জিনপিং এর ওই বার্তার পরে, উহান ক্যাটারিং ইন্ডাস্ট্রি অ্যাসোসিয়েশন নগরীর রেস্তোরাঁগুলিকে রাতের খাবার সীমিত করার আহ্বান জানান। রাতের খাবারের ক্ষেত্রে অন্তত যাতে এক ডিশ কম অর্ডার করে।

যারা প্রচুর পরিমাণে খাবার খেয়ে তা আবার লাইভ করছে তাদের সমালোচনা করেছে দেশটির স্টেট টিভি।