চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

গৃহবধূকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন, চুল কেটে জুতার মালা

দেবরের মেয়ের সংসার ভাঙ্গার অপবাদ দিয়ে রংপুরে মধ্যযুগীয় কায়দায় গাছের সঙ্গে বেঁধে এক গৃহবধূকে পিটিয়েছে দেবর ও তার পরিবারের লোকজন। শারীরিক নির্যাতনের পর তার চুল কেটে গলায় জুতার মালা ঝুলিয়ে দেয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় প্রধান আসামিসহ দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গঙ্গচড়া উপজেলার বেতগাড়ি ইউনিয়নের পুটিমারী ছিটমহল গ্রামে সদ্য বিয়ে হয় ওই নির্যাতিত নারীর দেবরের মেয়ের। বিয়ের ৪০ দিনের মধ্যেই দেবরের মেয়ের সংসার ভেঙ্গে যায়। আর এর অপবাদ দিয়েই বুধবার বিকেলে দেবর মতিন মিয়া হামলা চালায় ওই নারীর উপরে। এসময় দেবর মতিন, তার মেয়েসহ কয়েকজন ওই নারীকে গাছের সাথে বেঁধে বেধরক মারপিট করে। এক পর্যায়ে তার চুল কেটে গলায় জুতার মালা পরিয়ে দেয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

মধ্যযুগীয় কায়দায় এ নির্যাতনের ঘটনায় রংপুরজুড়ে তোলপাড় চলছে। বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছেন।

এ বিষয়ে রংপুরের পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার বলেন, নির্যাতনের ঘটনায় ওই নারীর ভাই গঙ্গাচড়া থানায় ছয় জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। এ ঘটনায় মামলার প্রধান আসামি আব্দুল মতিন ও তার সহযোগী আব্দুল মোতালেবকে ইতিমধ্যে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা পুটিমারী ছিটমহল এলাকা পরিদর্শন করেছেন। গঙ্গাচড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন ওই নারীর খোঁজ-খবর নিয়েছেন পুলিশ সুপার।

Bellow Post-Green View