চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

খাশোগি হত্যায় সিআইএ সৌদি যুবরাজকে দায়ী করেনি: ট্রাম্প

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগির হত্যার নির্দেশ দিয়েছিলেন সেই উপসংহার টানেনি সিআইএ।

ফ্লোরিডায় ট্রাম্পকে খাশোগি হত্যায় সিআইএ’র বিশ্লেষণ সম্পর্কে বলতে বলা হলে তিনি বলেন ‘তারা উপসংহার টানেনি’।

সিআইএ’র রিপোর্ট সম্পর্কে ট্রাম্প বলেন, তারা কয়েকটি উপায়ে ভেবেছে। আমার কাছে রিপোর্টটি আছে, তারা উপসংহার টানেনি। কেউ যদি উপসংহার টানতে পারে তাহলে একমাত্র যুবরাজই পারেন। তবে সে এসব করুক বা না করুক তারা তীব্রভাবে এর প্রতিবাদ জানিয়েছে। তার বাবা সৌদি রাজাও তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে।

এর আগে এই সপ্তাহের শুরুর দিকেই ট্রাম্প এক বিবৃতিতে বলেছিলেন, সৌদি যুবরাজ এই ঘটনার ব্যাপারে খুব ভালোভাবেই অবহিত। তাতে সে সেটা করুক বা না করুন।

বৃহস্পতিবার এই মন্তব্য করেন ট্রাম্প যে সময়ে সৌদি যুবরাজ মধ্যপ্রাচ্যে তার আঞ্চলিক সফর শুরু করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত ভ্রমণের মধ্য দিয়ে। খাশোগি হত্যাকাণ্ডের পরে এই প্রথমবারের মতো বিদেশ সফর করছেন তিনি।

Advertisement

এই মাসের শেষের দিকে জি ২০ মিটিংয়ে অংশ নেওয়ারও কথা রয়েছে যুবরাজের। সেখানে যুক্তরাষ্ট্র, তুরস্ক ও অন্যান্য ইউরোপীয় দেশগুলো থেকেও নেতারা এসে যোগ দেবেন।

এসবের মধ্যেই ফ্রান্স ১৮ সৌদি নাগরিকের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করার ঘোষণা দিয়েছে যাদের খাশোগি হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত বলে লক্ষ্য করেছিলো যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য এবং জার্মানিও। তবে সেই তালিকায় সৌদি যুবরাজ নেই বলে জানিয়েছে ফ্রেঞ্চ মিনিস্ট্রি অব ফরেন অ্যাফেয়ার্সের মুখপাত্র।

এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সৌদি যুবরাজের সম্পৃক্ততার কথা পুরোপুরি মিথ্যা বলে মন্তব্য করে আসছে সৌদি আরব, এমনকি তিনি এই ব্যাপারে কিছু জানতেন না বলেও দাবি করে আসছে তারা।

গত ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিতে গিয়ে নিখোঁজ হন সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগি।

প্রথম দিকে হত্যার দায় স্বীকার না করলেও পরে সৌদি সরকার স্বীকার করে, কনস্যুলেটের ভেতরে ‘ধস্তাধস্তিতে’ খাশোগি নিহত হন। এর দায়ে ১৮ জন অফিসারকে গ্রেপ্তার করে সৌদি সরকার।

হত্যাকাণ্ডে জড়িত হিসেবে সৌদি আরবের ১৫ জন কর্মকর্তার তালিকা প্রকাশ করে তুরস্কের সংবাদমাধ্যম।