চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ
Partex Group

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার হল অব ফেমে ল্যাঙ্গার-থম্পসন

বিজ্ঞাপন

সাবেক ওপেনার ও অস্ট্রেলিয়া দলের কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার হল অব ফেমে জায়গা পেয়েছেন। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া ল্যাঙ্গারের সঙ্গে মেয়েদের দলের সাবেক অধিনায়ক রেয়লি থম্পসনকে ফেমে যুক্ত করেছে।

১৯৯৩ সালে টেস্টে অভিষিক্ত ল্যাঙ্গার ১০৫ ম্যাচে ৪৫.২৭ গড়ে ৭,৬৯৬ রান করেছেন। ক্যারিয়ারের দ্বিতীয়াংশে ম্যাথু হেইডেনের সঙ্গে সাদা পোশাকের ক্রিকেটে অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে সফল উদ্বোধনী জুটি গড়ে অনেক সাফল্য এনেছেন।

pap-punno

ল্যাঙ্গার-হেইডেন জুটি ওপেনিংয়ে ১২২ ইনিংসে ৫১.৫৩ গড়ে ক্যাঙ্গারুদের হয়ে করেছিলেন ৬,০৮১ রান। শতরানের জুটি ছিল ১৪ বার।

বৃহস্পতিবার মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে বিস্মিত ল্যাঙ্গারের প্রতিক্রিয়া, ‘আপনি যদি কঠোর পরিশ্রম করতে থাকেন এবং বড় স্বপ্ন দেখতে থাকেন, তবে এটি দারুণ ব্যাপার। আমি চিমটি কেটেছি এটা ভাবতে যে, এতদিন অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটে ছিলাম।’

‘যেসব অধিনায়কের অধীনে খেলেছি, তাদের প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা। আমি যে ক্রিকেট ব্যক্তিত্ব হতে পেরেছি সেটার সঙ্গে সেসব অধিনায়কদের বড় ভূমিকা রয়েছে।’

Bkash May Banner

‘কখনোই সতীর্থদের ছাড়া কিছু করতে পারবেন না। কিছু অসাধারণ সতীর্থদের সঙ্গে খেলেছি। অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটের হয়ে অসাধারণ একটা সময়ে খেলেছি। আমার সব সতীর্থদের ধন্যবাদ জানাই।’

‘রিকি (পন্টিং), হেইডস (হেইডেন), স্টিভ ওয়াহ, ডেমিয়েন মার্টিন, শেন ওয়ার্ন, অ্যাডাম গিলক্রিস্ট, গ্লেন ম্যাকগ্রাকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। তারা আমার ভাইয়ের মতো।’

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার হল অব ফেমে স্থান পাওয়া আরেক তারকা রেয়লি থম্পসনকে নারী ক্রিকেটের একজন অগ্রদূত হিসেবে বিবেচনা করা হয়। চার দফায় অস্ট্রেলিয়ার নেতৃত্ব সামলেছেন।

ডানহাতি মিডিয়াম পেসার থম্পসন ১৯৭২ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখেন। ১৩ বছরের ক্যারিয়ারে খেলেছেন ১৬ টেস্টে, ১৮.২৪ গড়ে নিয়েছেন ৫৭ উইকেট। ২৩ ওয়ানডেতে ১৮.৬৬ গড়ে তুলেছেন ২৪ উইকেট।

ছেলে ও মেয়েদের বিভাগ মিলিয়ে টেস্ট ক্রিকেটে অনন্য এক রেকর্ড আজও ধরে রেখেছেন থম্পসন। সবচেয়ে বেশি বয়সে লাল বলের ক্রিকেটে নিয়েছিলেন ৫ উইকেট। অর্জনের সময় বয়স ছিল ৩৯ বছর ১৭৫ দিন।

বিজ্ঞাপন

Bellow Post-Green View