চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ক্যাপিটল হিলের তাণ্ডবে প্রাণ হারানো নারী সাবেক বিমানবাহিনী কর্মী

অবশেষে পরিচয় মিলেছে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটল হিলের তাণ্ডবে প্রাণ হারানো নারীর। ওই নারী একজন সাবেক বিমানবাহিনীর কর্মী ছিলেন। তার নাম অ্যাশলি বাব্বিট। নিজেকে ট্রাম্পের একজন স্বোচ্চার ভক্ত হিসেবেই ব্যাখ্যা করেন তিনি।

মৃত্যুর একদিন আগেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ওই জনসমাগম নিয়ে তিনি লিখেছিলেন, কিছুই আমাদের দমাতে পারবে না।  তারা চেষ্টার পর চেষ্টা চালিয়ে যাবে। কিন্তু ঝড় শুরু হয়ে গেছে। আর সেটা ডিসির উপর আছড়ে পড়বে।

বিজ্ঞাপন

বুধবার ক্যাপিটল হিলের ওই তাণ্ডবে ছিলেন ৩৫ বছর বয়সী বাব্বিটও।  মার্কিন বিমানবাহিনীর একজন অভিজ্ঞ কর্মী বাব্বিট ন্যাশনাল গার্ডের সাথে কুয়েত ও কাতারে মোতায়েনের আগে আফগানিস্তান ও ইরাকেও দু’বার ভ্রমণ করেছিলেন বলে তার প্রাক্তন স্বামী টিমোথি ম্যাকেনি মার্কিন গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন।

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে নিজেকে স্বাধীনতাবাদী ও দেশপ্রেমিক হিসেবেই ঘোষণা করেন তিনি। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে নিয়েও তিনি প্রায়ই পোস্ট দিয়েছেন, তার প্রতি প্রবল সমর্থন প্রকাশ করেছেন তিনি, আর ট্রাম্পের অপ্রমাণিত ভোট জালিয়াতির কথা বারবার উচ্চারণ করেছেন।

মার্কিন কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশন চলার সময় যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট ভবনে (ক্যাপিটল বিল্ডিং) প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উগ্র সমর্থকদের তাণ্ডবের ঘটনায় চারজনের মৃত্যু হয়।  তাদেরই একজন আশলি বাব্বিট।

মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সের সভাপতিত্বে শুরু হয় কংগ্রেসের ওই যৌথ অধিবেশন। আগেই ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল এ অধিবেশনেই ইলেক্টোরাল কলেজ ভোট গণনা করে স্বীকৃতি দেওয়া হবে নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জয়।

এছাড়াও বিভিন্ন রাজ্যের ভোট বাতিল নিয়েও আলোচনা হবার কথা ছিল অধিবেশনে। সেখানেই হামলা চালায় ট্রাম্পের সমর্থকরা।

বিজ্ঞাপন