চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কোচ-অধিনায়কের চাওয়ায় আলোচনায় তাসকিন

পেস আক্রমণে বৈচিত্র্য আনতে তাসকিন আহমেদকে বিশ্বকাপ দলে চাইছে আয়ারল্যান্ড সফরে থাকা বাংলাদেশ দলের ম্যানেজমেন্ট। তবে ক্রিকেট বোর্ড চাইছে না এখনই কোনো পরিবর্তন আনতে। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানিয়েছেন, ত্রিদেশীয় সিরিজের ম্যাচ ও ইংল্যান্ডে অনুশীলন দেখেই নেয়া হবে সিদ্ধান্ত।

আবু জায়েদ রাহির জায়গায় তাসকিনের অন্তর্ভুক্তির যে কথা উঠেছে তা সত্যি নয়। কেননা এখনও এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। শনিবার নাজমুল হাসান পাপন গুলশানে নিজ বাসায় সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে বললেন এমনই।

বিজ্ঞাপন

‘বোলিংয়ে ভারসাম্য আনতে ব্যাপারটা আলোচনায় এসেছে। তাসকিন অনেক লম্বা এবং দ্রুতগতির পেসার, সেক্ষেত্রে তাকে চাইছে টিম ম্যানেজমেন্ট। কেননা লম্বা হওয়ায় বাউন্সার মারতে পারবে। পেস অ্যাটাক ভারসাম্যপূর্ণ হবে। দলে যে পেসার আছে, তাদের মধ্যে রুবেল একটু গতিতে বল করে। মাশরাফী, রাহি, মোস্তাফিজ, সাইফউদ্দিন- এরা কিন্তু খুব জোরে বোলিং করে না। সেক্ষেত্রে ওরা চাইছে তাসকিনকে। কোচের একটা পছন্দ আছে।’

বিজ্ঞাপন

‘তবে আমরা ত্রিদেশীয় সিরিজ দেখবো। এখনও তো রাহি কিংবা তাসকিন খেলেইনি। দেখে বোঝা যাবে। তাছাড়া ফিটনেসের ব্যাপারও আছে। তাসকিন প্রস্তুতি ম্যাচে ৩ উইকেট নিলেও শতভাগ দিয়ে কিন্তু বোলিং করতে পারেনি। ত্রিদেশীয় সিরিজের পর লেস্টারশায়ারে ৫ দিনের ক্যাম্প আছে। সেখানে দেখার সুযোগ পাব। ২৩মে বিশ্বকাপ দলে পরিবর্তন আনার শেষ তারিখ। ওই তারিখ পর্যন্ত দেখেই আমরা সিদ্ধান্ত নেব।’

প্রশ্ন উঠেছে বিশ্বকাপ দলে থাকার পরও কেন আবু জায়েদকে বাদ দেয়ার ভাবনা আসছে? জবাবে নাজমুল হাসান বললেন, ‘তাসকিন চোটে থাকাতেই কিন্তু রাহি বিশ্বকাপ দলে চলে আসে।’

চোট বাধা হয়ে না এলে বিশ্বকাপ দলে অবধারিতভাবেই থাকতেন তাসকিন। কিন্তু বিপিএলে পাওয়া চোট সম্ভাবনা কমিয়ে দেয়। যখন ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করা হয়, তখনও চোট থেকে পুরোপুরি সেরে উঠতে পারেননি এ পেসার। যে কারণে দলে রাখা হয় আবু জায়েদকে। ২৩মে’র আগে তাসকিন যদি নিজেকে মেলে ধরতে পারেন, তাহলে তারই সম্ভাবনা বেশি থাকবে বিশ্বকাপে খেলার- এমন আভাসই মিলল বিসিবি সভাপতির কথায়।

Bellow Post-Green View