চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কে মিথ্যা বলছেন, ট্রাম্প না মোদি?

কাশ্মীর নিয়ে মোদি সহায়তা চেয়েছেন দাবি ট্রাম্পের, ভারতের অস্বীকার

কাশ্মীর নিয়ে পাকিস্তানের সঙ্গে সংকট সমাধানে ভারত সরকার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সহায়তা চেয়েছে, মার্কিন প্রেসিডেন্টের এমন দাবি অস্বীকার করেছে ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে, তাহলে কে মিথ্যা বলছে? ট্রাম্প না মোদি? 

বিবিসি জানায়, ডোনাল্ড ট্রাম্প দাবি করেছিলেন, কাশ্মীর সংকট নিরসনে তাকে মধ্যস্থতা করার আহ্বান জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

বিজ্ঞাপন

সোমবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে বৈঠকের পর সাংবাদিকদের এ কথা বলেন ট্রাম্প।

বৈঠক শেষে ওই সংবাদ সম্মেলনে ইমরান খানকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, কাশ্মীর নিয়ে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যকার ৭০ বছরের দীর্ঘ দ্বন্দ্ব নিরসনে যুক্তরাষ্ট্র কোনো রকম সহায়তা করতে পারবে কিনা। জবাবে ইমরান বলেছিলেন, শুধু মাত্র প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নেতৃত্বে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী রাষ্ট্রটি এই দুই দেশকে একত্রিত করতে পারে।

এরপরই ট্রাম্প বলেন, ‘দু’সপ্তাহ আগে আমার প্রধানমন্ত্রী মোদির সঙ্গে দেখা হয়েছিল এবং আমরা এ বিষয়ে কথাও বললাম। তখন তিনি নিজেই বললেন, ‘আপনি কি একজন মধ্যস্থতাকারী বা নিষ্পত্তিকারী হতে পারেন?’ আমি জিজ্ঞেস করলাম, ‘কী বিষয়ে?’ তিনি বললে, ‘কাশ্মীর, কারণ এটা বহু, বহু বছর ধরে চলছে।’

‘এতে যদি উপকার হয় তবে আমি খুশিমনে মধ্যস্থতাকারী হবো,’ বলেন ট্রাম্প।

বিজ্ঞাপন

পাকিস্তান যুক্তরাষ্ট্রের হস্তক্ষেপকে স্বাগত জানালেও এর প্রতিবাদ করে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, এমন কোনো অনুরোধই ট্রাম্পের কাছে জানানই মোদি।

এরই মধ্যে ভারতের রাজনীতিতে তোলপাড় সৃষ্টি করেছে এই ঘটনা। সংসদে বিরোধীদলগুলোর সদস্যরা এ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বক্তব্য দাবি করেন।

অবশ্য পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয় শঙ্কর সংসদে জানান, কাশ্মীর ইস্যুতে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে তৃতীয় পক্ষের আসার সুযোগ নেই। এ নিয়ে দু’দেশের মধ্যে আলোচনা হতে পারে; তবে তার আগে পাকিস্তান সীমান্ত সন্ত্রাস বন্ধ করতে হবে।

টুইটের মাধ্যমে ওই বিবৃতিতে মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রবীশ কুমার বলেন, পাকিস্তানের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ভারতের সব ইস্যু শুধু এই দুই দেশের মধ্যেই আলোচনা করা হয়। ‘পাকিস্তানের সঙ্গে যে কোনো আলোচনার আগে পাকিস্তানকে সীমান্তে সন্ত্রাস বন্ধ করতে হবে,’ বলেন তিনি।ট্রাম্প-মোদি-ট্রাম্পের সহায়তা-কাশ্মীর

ভারতীয় রাজনীতিক শশী থারুর ট্রাম্পের বক্তব্যের সমালোচনা করে বলেছেন, ট্রাম্পের আসলেই কোনো ধারণাই নেই তিনি কী বলছিলেন।

টুইটবার্তায় থারুর বলেন, ‘হয় তাকে (ট্রাম্প) এ বিষয়ে পরিষ্কারভাবে ব্রিফ করা হয়নি অথবা মোদি কী বলেছেন তা তিনি বুঝতেই পারেননি।’

তবে মার্কিন পররাষ্ট্র বিভাগ জানিয়েছে, এটি একান্তই ভারত-পাকিস্তানের বিষয়। তাদের আলোচনাকে সবসময়ই স্বাগত জানাবে যুক্তরাষ্ট্র। এজন্য প্রয়োজনীয় সব ধরনের সহায়তা দিতেও প্রস্তুত তারা।

Bellow Post-Green View