চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কিশোর-যুবাদের জন্য যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য সেবাকেন্দ্র প্রতিষ্ঠার তাগিদ

সরকারী ও বেসরকারী উদ্যোগে কিশোর-যুবাদের উপযোগী যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য সেবাকেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করাসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়ার তাগিদ দিয়েছেন ইউবিআর বাংলাদেশ এ্যালায়েন্স কর্তৃপক্ষ।

রোববার রাজধানীর সিডরাপ মিলনায়তনে ‘যুববান্ধব স্বাস্থ্যসেবা বিষয়ে প্রকল্পের কাজের অভিজ্ঞতা বিনিময়’ শীর্ষক এক সভায় এসব কথা তুলে ধরা হয়।

বিজ্ঞাপন

ইউবিআর প্রকল্প বিগত ৯ বছর ধরে দেশের ১২টি উপজেলার স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসা ও কমিউনিটিতে ১০- ২৪ বছর বয়সী কিশোর-যুবাদের যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য এবং অধিকার শিক্ষা ও স্বাস্থ্যসেবামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। এজন্য এই ইস্যুর মতো স্পর্শকাতর বিষয়ে শিক্ষক-অভিভাবকসহ সমাজের নানা শ্রেণি-পেশা ও স্তরের মানুষকে সংবেদনশীল করে বিষয়টি নিয়ে খোলামেলা আলোচনার পরিবেশ তৈরি করার উদ্দেশ্যে বিভিন্ন সভা ও প্রশিক্ষণের আয়োজন করছে।

এ প্রকল্প বাংলাদেশ সরকারের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়নে সহযোগিতা প্রদান করে যাচ্ছে যা উল্লেখিত কাজের মাধ্যমে বাস্তবায়িত হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

সভায় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সচিব জি এম সালেহ উদ্দিন বলেন, ইউবিআর বাংলাদেশ এ্যালায়েন্সের প্রণীত যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য বিষয়ক ‘‘আমি ও আমার পৃথিবী’’ একটি সময়োপযোগী ও প্রয়োজনীয় শিক্ষা উপকরন।

জাতীয় শিক্ষা কারিকুলামের মূলধারায় ‘আমি ও আমার পৃথিবী’ অন্তর্ভুক্ত করার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দেন তিনি।

নেদারল্যান্ড দূতাবাসের প্রতিনিধি মাশফিকা জামান সাতিয়ার বলেন, ইউবিআর লেসন লার্নিংগুলি মিনিষ্ট্রিতে শেয়ার করবেন যাতে মেইনস্ট্রিমিং করা যায়।

সভায় ইউবিআর বাংলাদেশ এ্যালায়েন্সের যুব সংগঠক জুবায়ের যুব বিভিন্ন প্রস্তাব তুলে ধরে বলেন, ‘সরকারের পক্ষ থেকে ১০- ১৯ বছর বয়সের কিশোর-কিশোরিদের স্বাস্থ্য নিয়ে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহন করেছেন। ২০-২৪ বছরের যুবাদেরকেও এ সকল উদ্যোগের অন্তর্ভুক্ত করার জন্য আমি সুপারিশ করছি।’

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান মন্ত্রনালয়, নেদারল্যান্ড দূতাবাসসহ এবং জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থার বিভিন্ন কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন।