চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

কানাডা-যুক্তরাষ্ট্র সীমান্ত খুলতে মার্কিন কংগ্রেসের চাপ

কানাডার সাথে যুক্তরাষ্ট্রের সীমান্ত আবার চালু করতে চাপ দিচ্ছে কংগ্রেসের মার্কিন সদস্যরা। তবে কানাডা সরকার তা প্রত্যাখ্যান করেছে।

কানাডার স্থানীয় গণমাধ্যম সিটিভি জানিয়েছে, কানাডার জননিরাপত্তামন্ত্রী বিল ব্লেয়ারকে দেয়া একটি খোলা চিঠিতে, মার্কিন কংগ্রেসের ২৯ দ্বিপক্ষীয় সদস্য কানাডা সরকারকে কানাডা-যুক্তরাষ্ট্র সীমান্ত পর্যায়ক্রমে চালু করার পাশাপাশি বিদ্যমান ব্যবস্থা সহজ করার আহ্বান জানিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

গত ৩ জুলাই ওয়েস্টার্ন নিউ ইয়র্কের কংগ্রেস সদস্য ব্রায়ান হিগিন্স এর ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ওই চিঠিতে আরও বলা হয়, ‘আমরা জানতে চাই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং কানাডা অবিলম্বে নির্দিষ্ট কিছু নির্দেশনার ভিত্তিতে সীমানা পুনরায় খোলার এবং সীমান্ত অঞ্চল জুড়ে বিভিন্ন পরিস্থিতিতে হিসাবরক্ষণের জন্য একটি বিস্তৃত কাঠামো তৈরি করতে পারে কিনা।

বিজ্ঞাপন

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো গতমাসে ঘোষণা করেন, কানাডা এবং যুক্তরাষ্ট্র কমপক্ষে ২১ শে জুলাই পর্যন্ত দু’দেশের মধ্যে অপ্রয়োজনীয় ভ্রমণ সীমাবদ্ধ রাখবে।

বিজ্ঞাপন

তিনি আরো বলেন, এমনকি উভয় দেশ তাদের অর্থনীতি পুনরায় চালু রাখার পরেও এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত যা আমাদের উভয় দেশের মানুষকে সুরক্ষিত রাখবে।

মার্চ মাসে প্রথম আরোপিত হওয়ার পরে এই চুক্তিটি গত ২১ জুন তৃতীয়বারের মতো বাড়ানো হয়। সিদ্ধান্ত বাড়ানোর ওই ঘোষণাকে অনেকেই সাধুবাদ জানিয়েছিলেন।

কানাডার স্থানীয় নীতিনির্ধারক ও বিশ্লেষকেরা মনে করেন, বৈশ্বিক মহামারীর এই সময়ে দুই দেশের কথা চিন্তা করে বর্ডার এখনই খুলে দেয়া ঠিক হবে না।

কানাডার স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী জোর দিয়েই বলেছেন যে কানাডার সীমান্ত আন্তর্জাতিক ভ্রমণের জন্য পুনরায় চালু করা ঝুঁকিপূর্ণ। কারণ বিশ্বব্যাপী দেশগুলি এখনও মহামারী নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে।

কানাডায় ১ লাখ ৭ হাজার ১২৬ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে এবং ৮,৭৫৯ জন মারা গেছে এবং সুস্থ হয়েছেন ৭০ হাজার ৯০১জন।