চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনা: মন্ত্রণালয়ের ‘দায়িত্বহীনতায়’ বিস্মিত সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ইতালি থেকে ফেরতদের কোয়ারেন্টাইনে না রাখার অভিযোগ

করোনা ভাইরাসে বিপর্যস্ত ইতালি থেকে বাংলাদেশে ফেরত আসা ব্যক্তিদের কোয়ারেন্টাইনে না রেখে বিমানবন্দর থেকেই ছেড়ে দিয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। 

তিনি বলেছেন, ইতালি থেকে ফেরত আসা ব্যক্তিদের বিমানবন্দর থেকে তাৎক্ষণিক কোয়ারেন্টাইনে রাখার ব্যবস্থা না করে দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

সোমবার দুপুরে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু একাডেমী আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন নাসিম।

সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ইতালি থেকে আসা ওই দুই জনকে কেন সাথে সাথে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে রাখা হলো না? বিমানবন্দর থেকে কিভাবে তাদের ছেড়ে দেওয়া হলো? তারা তো গ্রামে ঘুরেছে। সব সতর্কতা অবলম্বনের পরও এই ধরনের ঘটনা কেন ঘটলো? এতে আমরা বিস্মিত হয়েছি।’

বিজ্ঞাপন

‘বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ এবং চলমান রাজনীতি’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, করোনার বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে, সবার স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর এই নির্দেশনা সবার অনুসরণ করা উচিত।’

১৪ দলের এই মুখপাত্র আরও বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার অর্জন যেন নষ্ট না হয়। মনে রাখতে হবে, আবার যদি অন্ধকার যুগ ফিরে আসে তাহলে আমরা কেউই রেহাই পাবো না। ষড়যন্ত্রকারী ফের তৎপর। সুযোগ পেলেই ছোবল মারবে।’

জি কে শামিমের জামিনে জড়িত আইনজীবীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি তুলে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘দুঃখ লাগে ওই আইনজীবী আওয়ামী লীগের লোক। আওয়ামী লীগের সব অর্জন নষ্ট করতে কিছু মানুষ তৎপর। বারবার তারা শেখ হাসিনার অর্জন প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করছে।’

বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণের আবেদন চিরন্তন উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এটি যুগ যুগ ধরে দেশের মানুষের পাশাপাশি বিশ্ববাসীকে মুক্তির চেতনায় উজ্জীবিত করবে।’

বঙ্গবন্ধু একাডেমীর সভাপতি নাজমুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগ নেতা বলরাম পোদ্দার, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, আওয়ামী লীগ নেতা এমএ করিম, সংগঠনের মহাসচিব হুমায়ুন কবির মিজি প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন