চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করোনায় মানুষের পাশে থেকে জাতিসংঘের ‘বাস্তব জীবনের নায়ক’ ঢাবির সৈকত

জাতিসংঘ কর্তৃক ‘বাস্তব জীবনের নায়ক’ (রিয়েল লাইফ হিরো) স্বীকৃতি পেয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সদ্য সাবেক সদস্য ও থিয়েটার অ্যান্ড পারফরম্যান্স স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী তানভীর হাসান সৈকত৷

বিজ্ঞাপন

দুর্দশাগ্রস্থ মানুষদের সহায়তার জন্য সৈকতসহ আরও কয়েকজন বাংলাদেশি তরুণকে এই স্বীকৃতি দিয়েছে জাতিসংঘের মানবিক সহায়তা কার্যক্রম সমন্বয় সংস্থা (ইউএনওসিএইচএ)৷

বিজ্ঞাপন

গতকাল বুধবার ছিল বিশ্ব মানবতা দিবস৷ দিবসটি উপলক্ষে গত সোমবার মানবতাবাদী ও মানবিক সহায়তায় সম্মুখযোদ্ধাদের প্রতি বিশেষ শ্রদ্ধা জানিয়ে ‘রিয়েল লাইফ হিরোস’ নামের ক্যাম্পেইন করে ইউএনওসিএইচএ৷ এর উদ্দেশ্য মানবিক কাজের স্বীকৃতি ও মানুষকে মানবিকতায় উদ্বুদ্ধ করা৷

তানভীর হাসান সৈকত সম্পর্কে ইউএনওসিএইচএর ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, গত মার্চে বাংলাদেশে করোনা মহামারি শুরু হওয়ার পর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাস ছেড়ে নিজেদের বাড়িতে চলে যান৷ কিন্তু তানভীর (সৈকত) ও তাঁর কয়েকজন বন্ধু ও সহযোগী ক্যাম্পাসে থেকে ভাসমান মানুষকে সহায়তা করেন৷ গত এপ্রিলের শুরু থেকে টানা ১১৬ দিন মানবিক সহায়তা কার্যক্রম পরিচালনার পর তিনি সুনামগঞ্জের বন্যাকবলিত মানুষকে সহায়তা করতে সেখানে যান৷ বন্ধু ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের নিকট অর্থসহায়তা নিয়ে তিনি মানবিক কার্যক্রম অব্যাহত রাখেন৷

জাতিসংঘ কর্তৃক স্বীকৃতি পাওয়ায় নিজের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে চ্যানেল আই অনলাইনকে সৈকত জানান, এটি তার জন্য ভীষণ অনুপ্রেরণার। ভবিষ্যতে চলার পথের পাথেয়।

তিনি বলেন, ‘আমি স্বীকৃতি পাওয়ার জন্য কাজ করি নি। কাজ করেছি নিজের তৃপ্তির জন্য। নিজের প্রতি জবাবদিহিতার জায়গা থেকে। তারপরও যখন জাতিসংঘ থেকে স্বীকৃতি পাওয়া যায় সেটি অবশ্যই দারুণ ব্যাপার। এটি আমাকে ভবিষ্যতে মানুষের কল্যাণে কাজ করতে অনুপ্রেরণা যোগাবে।’

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সংসদের সাবেক এই নেতা বলেন, আমি আজীবন সমাজের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের জন্য লড়ে যাব। তাদের জন্যই রাজনীতি করব।’

তানভীর ছাড়াও জাতিসংঘের ‘বাস্তব জীবনের নায়ক’ হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছেন বাংলাদেশি প্রকৌশলী রিজভী হাসান, ধাত্রী তানিয়া আক্তার, অনুবাদক সিফাত নূর ও করোনাকালে মানুষের পাশে দাঁড়ানো তরুণী আঁখি৷