চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

করদাতাদের জন্য বিশেষ ছাড় দিচ্ছে ভারত সরকার

করোনাভাইরাসের এই সঙ্কটসময়ে করদাতাদের হাতে বাড়তি নগদের জোগান দিতে টিডিএস এবং টিসিএসের হার ২৫ শতাংশ কমিয়েছে ভারতের কেন্দ্র সরকার।

আয়কর দফতরের বরাতে হিন্দুস্থান টাইমস এ সংবাদ জানিয়ে বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করেছে।

বিজ্ঞাপন

ভারতীয় আয়কর দপ্তর জানিয়েছে, যদি কোনও কর্মী ফি হিসেবে এক কোটি টাকা পান, তাহলে তার ১০ শতাংশ হারে ১০ লাখ টাকা টিডিএস কাটা হত। ফলে তিনি হাতে ৯০ লাখ টাকা পেতেন। নতুন নিয়মের পর ৭.৫ শতাংশ হারে টিডিএস কাটা হবে। ফলে সংশ্লিষ্ট কর্মী ৯২.৫ লাখ টাকা পাবেন।

বিজ্ঞাপন

নতুন এই হার ডিভিডেন্ড, কনট্র্যাক্টর, সাব-কনট্র্যাক্টর, ইনসুরেন্স কমিশন, ব্রোকারেজ, স্থাবর সম্পত্তি ও যন্ত্রপাতি ভাড়া এবং পেশাগত ফি’র ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে বলেও জানানো হয়েছে। সুবিধা পাবেন ব্যাংক গ্রাহকরাও, যদি কোনও ব্যক্তি ব্যাংক থেকে ২০,০০০ টাকা সুদ পান, তাহলে বর্তমান ১০ শতাংশ হারে ২,০০০ টাকা টিডিএস কাটবে। নয়া হারে ১,৫০০ টাকা টিডিএস কাটবে ব্যাংক। অর্থাৎ ওই ব্যক্তি বাড়তি ৫০০ টাকা পাবেন।

আরো জানানো হয়েছে, টিডিএস হার হ্রাসের ফলে বাড়ির মালিক, চাটার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট, স্থাপত্যবিদ, চিকিৎসক, আইনজীবী, ফ্রিলান্সার এবং পরামর্শদাতাদের হাতে বাড়তি টাকা আসবে। যেমন – এক লাখ টাকা দিয়ে কোনও ব্যক্তি যদি বাড়ি ভাড়া দেন, তাহলে ১০ শতাংশ টিডিএস কাটার পর তিনি ৯০,০০০ টাকা পেতেন। এখন সেটা বেড়ে হবে ৯২,৫০০। কারণ টিডিএস হার কমে ৭.৫ শতাংশ হওয়ায় ৭,৫০০ টাকা কাটা হবে।

এই নতুন হারে সুবিধা পেতে হলে অবশ্যই আধার বা প্যান কার্ড দিতে হবে, না দিলে টিডিএস বা টিসিএসের হারে কোনও ছাড় মিলবে না। নতুন এই হার শুধুমাত্র চলতি বছরের ১৪ মে থেকে ২০২১ সালের ৩১ মার্চ পর্যন্ত কার্যকর হবে। ফলে ১৪ মে’র আগে নতুন টিডিএস হার কার্যকর হবে না।