চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

এবার ম্যাককালাম বললেন ‘বাজে উইকেট’

কয়েকদিন ধরেই মিরপুরের উইকেট নিয়ে আলোচনা তুঙ্গে। অসমান বাউন্স ও গতির তারতম্য থাকায় রান হচ্ছে না বিপিএলে। হতাশা থেকে উইকেটকে ‘জঘন্য’ বলে মন্তব্য করে বিসিবির কারণ দর্শানোর নোটিশের মুখে পড়েছেন কুমিল্লার অধিনায়ক তামিম ইকবাল। রংপুরের অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজাও বলেছিলেন টি-টুয়েন্টিতে এমন উইকেট অগ্রহণযোগ্য। এবার হোম অব ক্রিকেটের উইকেটকে ‘বাজে’ বললেন রাইডার্সদের বিদেশি ক্রিকেটার ব্রেন্ডন ম্যাককালাম।

‘আমার মনে হয় এটা খুব বাজে উইকেট ছিল। এখানে অনেক ভাল, বিশ্বমানের খেলোয়াড় আছে। এখানে সবাই রোমাঞ্চকর ক্রিকেট দেখতে চায়। মনে হয় না তারা আজ সেরকম কোন ম্যাচ দেখতে পেয়েছে। আজ যা হয়েছে তার চেয়ে ভাল উইকেটে সামনে খেলা হওয়া উচিত বলে আমার মনে হচ্ছে।’

বুধবার গ্রুপপর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে ঢাকা ডায়নামাইটসকে ১৩৭ রানে বেধেও জয়ের সম্ভাবনা জাগাতে পারেনি রংপুর। ২০ ওভার খেলে ৭ উইকেট হারিয়ে তুলতে পারে মাত্র ৯৪ রান। মাশরাফীর ইনজুরিতে ম্যাচে নেতৃত্বের ভার ছিল ম্যাককালামের কাঁধে। ম্যাচ শেষে উইকেট প্রশ্নে এভাবেই মাশরাফীর মত হতাশা প্রকাশ করেন নিউজিল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক।

আন্তর্জাতিক টি-টুয়েন্টিতে সবচেয়ে বেশি রান করে অবসরে গেছে ম্যাককালাম। দুবছর আগে অবসরে গেলেও এখনও তাকে টপকাতে পারেনি কেউ। ৭১ ম্যাচে নামের পাশে ২১৪০ রান। গড় ৩৫.৬৬, স্ট্রাইকরেট ১৩৬.২১। সবধরনের টি-টুয়েন্টিতে ম্যাককালামের রান ৮,৩৯৬। যা দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। সর্বোচ্চ তার বর্তমান রংপুর সতীর্থ ক্রিস গেইলের। ক্যারিবীয় ব্যাটিংদানব অপেক্ষায় আছেন ১১ হাজারি ক্লাবে ঢোকার (১০,৭৮১)।

বিজ্ঞাপন

সেই অর্থে টি-টুয়েন্টির অন্যতম বিস্ফোরক দুই ব্যাটসম্যান খেলছেন রাইডার্সের জার্সিতে। এখনও অবশ্য ঝড় তুলতে পারেননি তাদের কেউই। কেন হচ্ছে না, এমন প্রশ্নে আরেকবার উইকেটকে দুষলেন ম্যাককালাম।

‘আরও বেশি রান করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু গত কয়েক বছরে আমি অন্যরকম উইকেটে খেলতে অভ্যস্ত। এখানে তো টার্ন আর বাউন্সের ব্যাপারে নিশ্চিতও হতে পারছি না। বল কখনো কখনো ওপর দিয়ে চলে যাচ্ছে। অনেকের সাথে কথা বলেছি, ওরা জানিয়েছে পিচ আগে বেশ ভাল ছিল। কিন্তু একজন স্ট্রোকমেকার হিসেবে এখানে খেলা অনেক কঠিন হচ্ছে। আমার পারফরম্যান্স অবশ্যই আরও ভাল হওয়া উচিত ছিল। আরেকটু ভাল উইকেট পেলে হয়ত আরও ভাল হতো। আমি হয়ত আরেকটু বেশি ধারাবাহিক হতে পারতাম।’

বিপিএল শুরুর আগে থেকেই দর্শকরা মুখিয়ে ছিলেন গেইল-ম্যাককালাম জুটির তাণ্ডব দেখার। সেটির ছিটেফোঁটাও দেখা যায়নি। প্রথমবার এসে ৯ ম্যাচে ম্যাককালাম করেছেন ১৫২ রান। কোন ফিফটি নেই। সর্বোচ্চ ৪৩! গেইল সেখানে ৮ ম্যাচে দুই ফিফটিতে করেছেন ২১০ রান। অথচ গেইলের নামের পাশে প্রতি আসরেই থাকে সেঞ্চুরি।

গেইল-ম্যাককালাম জুটির ঝড় দেখতে না পাওয়ার প্রশ্নেও কিউই তারকা বললেন উইকেটের কথাই, ‘আরও ভাল উইকেট পেলে আরও রানের আশা করাই যায়।’

বিজ্ঞাপন