চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

এনআরবিসি ব্যাংকের পরিচালক পদ হারালেন কুয়েতে আটক সংসদ সদস্য পাপুল

বিদেশে মানব ও অবৈধ মুদ্রা পাচারের অভিযোগে কুয়েতে আটক লক্ষ্মীপুরের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য শহিদ ইসলাম পাপুলকে এনআরবি কমার্শিয়াল (এনআরবিসি) ব্যাংকের পরিচালক পদ থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে।

একই সঙ্গে ব্যাংকটির ভাইস চেয়ারম্যান ও এনআরবিসি ব্যাংক সিকিউরিটিজের চেয়ারম্যান পদ থেকেও বাদ পড়েছেন তিনি।

সোমবার শহিদ ইসলাম পাপুলকে পরিচালনা পর্ষদ থেকে বাদ দেয়ার বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন ব্যাংকটির চেয়ারম্যান তমাল পারভেজ।

তিনি বলেন, শনিবার ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদের সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। ব্যাংকের ওয়েবসাইটে পরিচালকদের নামের তালিকা থেকেও তার নাম বাদ দেয়া হয়েছে। ব্যাংকটিকে বির্তকের ঊর্ধ্বে রাখতেই এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

২০১৩ সালে প্রবাসীদের উদ্যোগে গঠিত এনআরবিসি কমার্শিয়াল ব্যাংক অনুমোদন পায়। সাংসদ শহিদ ইসলাম পাপুল ছিলেন ব্যাংকটির প্রতিষ্ঠাকালীন উদ্যোক্তাদের একজন। অনিয়ম ও জালিয়াতির কারণে ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে ব্যাংকটির পরিচালনা ও ব্যবস্থাপনায় পরিবর্তন আসে। তখনই ব্যাংকটির বিভিন্ন দায়িত্বে আসেন তিনি।

যৌথ মূলধন কোম্পানি ও ফার্মগুলোর নিবন্ধকের কার্যালয় (আরজেএসসি) সূত্রে জানা গেছে, ব্যাংকটিতে শহিদ ইসলাম পাপুলের নামে ২ কোটি ২১ লাখ এবং তার স্ত্রী সংরক্ষিত নারী আসনের সাংসদ সেলিনা ইসলামের নামে ১ কোটি ৯ লাখ শেয়ার রয়েছে।

মানব ও মুদ্রা পাচারের অভিযোগে চলতি বছরের ৬ জুন কুয়েতে আটক হন শহিদ ইসলাম পাপুল।গত বৃহস্পতিবার তাকে কুয়েতের কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে। দেশটির অ্যাটর্নি জেনারেল ধারার আল-আসাউয়ি তাকে ঘুষ দেওয়া, মানব ও অবৈধ মুদ্রাপাচার এবং রেসিডেন্ট পারমিট বিক্রির অভিযোগে ২১ দিন কারাগারে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন।

শেয়ার করুন: