চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

উসাইন বোল্টের গতির রহস্য

বেইজিং এ সদ্য সমাপ্ত বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশীপে ক্যারিবীয় গতিদানব উসাইন বোল্ট বিদ্যুৎ গতির রাজত্ব করেছেন। ১০০ মিটার, ২০০ মিটার দৌড়ে হয়েছেন প্রথম।

চ্যাম্পিয়নশীপে ১০০ মিটার দৌড় শেষ করতে সময় নেন ৯ দশমিক ৭৯ সেকেন্ড, ২০০ মিটার দৌড় শেষ করতে সময় নেন ১৯ দশমিক ৫৫ সেকেন্ড।

বিজ্ঞাপন

২০০৮ সাল থেকে শুরু করে বোল্ট যতগুলো দৌড় প্রতিযোগিতায় নাম লিখিয়েছেন তার মধ্যে একটি ছাড়া প্রতিটিতেই প্রথম হয়েছেন তিনি। একমাত্র ব্যর্থতাটির পেছনে ছিল ‘ভুল শুরু’র কারণে বাদ পড়ে যাওয়া।

বিজ্ঞাপন

কি কারণ থাকতে পারে বোল্টের এই দৌড়ের । কিইবা রহস্য অাছে বোল্টের দৌড়ের মধ্যে।  সাবেক দৌড়বিদ ক্রেইগ পিকারিং বলছেন, বোল্ট জন্মগত ভাবেই সুবিধাজনক অবস্থায় আছে। কারণ সে ৬ফুট ৫ ইঞ্চি লম্বা। ‘অতিরিক্ত লম্বা পা হওয়ায় শুরুতে গতি তুলতে পারে না সে। কিন্তু যখন গতির শীর্ষে পৌঁছে যায় তখন তার গতি হয় সবার চাইতে বেশি, কারণ লম্বা পা থাকার দরুন অন্যদের চাইতে কম ধাপ দিলেই অন্যদের সমান বা বেশি গতি সে পায়’।

‘সাধারণভাবে ৪১ ধাপেই ১শ মিটার দৈর্ঘ্য অতিক্রম করে বোল্ট। তার মানে তার ধাপ দীর্ঘ। আর এই দীর্ঘ ধাপই আসলে পার্থক্য গড়ে দেয়’, বলছেন মি.পিকারিং।

গবেষণা দেখাচ্ছে, অপেশাদার দৌড়বিদরা একশ’ মিটার দৌড় শেষ করতে যেখানে ৫০ থেকে ৫৫টি ধাপ দেয় সেখানে পেশাদার দৌড়বিদেরা দেয় ৪৫টি ধাপ।

তবে ব্যাপারটা যখন গতি তারকা বোল্টের তখন কোনো ঐশ্বরিক কারণ থাকলেও থাকতে পারে।