চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ঈদযাত্রা: কতোটা প্রস্তুত ঢাকা-টাঙ্গাইল ফোর লেন

ঈদের আর মাত্র কয়েকদিন বাকী। এ উপলক্ষে উত্তরবঙ্গসহ দেশের ২১ জেলার মানুষ ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ব্যবহার করে নাড়ীর টানে ঘরে ফিরতে শুরু করেছে।

বিগত দিনে ঈদ যাত্রায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা যানজটে আটকে থাকায় চরম ভোগান্তির অভিজ্ঞতাও রয়েছে তাদের। দুর্ভোগ লাঘবে সরকারের চার লেনে উন্নীতকরণ কাজ এখন অনেকটা দৃশ্যমান।

ইতোমধ্যে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী চন্দ্রায় ফোর লেনের কাজ দেখতে এসে সোমবার থেকে ফোরলেন খুলে দেবার কথা বলেছেন। তবে বড় প্রকল্প হওয়ায় তৈরি হয়েছে বেশকিছু প্রতিবন্ধকতা।

বারবার সময় বাড়িয়েও ঠিকারদারি প্রতিষ্ঠানগুলি শেষ করতে পরেনি মহাসড়কের চার লেন উন্নয়নের কাজ। প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে ২৬টি ব্রীজ, ৬০টি কালভার্ট, ৩টি ফ্লাইওভার, ১০টি আন্ডারপাস ও রেল ওভারপাসের মতো বড় বড় অবকাঠামোর।

কর্তৃপক্ষ দাবী করছে, ২৬টি বীজের মধ্যে ২৪ ব্রীজ, ৬০টি কালভাটের মধ্যে ৫২ কালভার্টের কাজ শেষ। ৩টি ফ্লাইওভারের মধ্যে ১টির কাজ চলমান অপর দু’টি ঈদের পরে কাজ শুরু করা হবে।

অন্যদিকে ১০টি আন্ডারপাস ও রেল ওভারপাসের মতো বড় বড় অবকাঠামোর মধ্যে চারটির কাজ চলমান রয়েছে। এদিকে ফোর লেন সড়কের অনেকাংশ দৃশ্যমান হলেও সড়কের বড় একটি অংশের কাজ এখনো শেষ করতে পারেনি কর্তৃপক্ষ।

এর ফলে ঈদ যাত্রায় পুরোপুরিভাবে প্রস্তুত নয় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক। তবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে যানজট ও ভোগান্তি মুক্ত ঈদ যাত্রার আশ্বাস দেয়া হলেও প্রতিবন্ধকতাগুলোর কারণে এবারেও যানজটের শঙ্কায় এ সড়ক ব্যবহারকারীরা।

সরেজমিনে ও মহাসড়কে চলাচলকারী চালক ও যাত্রীরা বলেন: গাজীপুরের চন্দ্রা থেকে টাঙ্গাইলের এলেঙ্গা পর্যন্ত প্রায় ৬৫ কি.মি সড়ক। উত্তরবঙ্গের ঢাকার প্রবেশ মুখ চন্দ্রার ত্রিমুখী গোলচত্ত্বরের ফ্লাইওভার, কালিয়াকৈর সরু রেল ওভারপাস, কালিয়াকৈর বাসস্ট্যান্ডে চলমান আন্ডারপাস, ধেরুয়ায় চলমান রেল ওভারপাস, সোহাগপুর ব্রীজ, ধেরুয়া চলমান রেল ওভারপাস, মির্জাপুর বাসস্ট্যান্ডের চলমান আন্ডারপাস, পাকুল্লা ব্রীজ, করোটিয়া ব্রীজ, তারুটিয়া ব্রীজ, ঘারিন্দা আন্ডারপাস, রাবনা ও এলেঙ্গায় ফ্লাই ওভারের তৈরির এপ্রোচ সড়কে এখনো স্বাভাবিক যানচলাচলে ব্যাপক প্রতিবন্ধকতা রয়েছে।

এসব স্থানে চার লেন এসে এক লেনে পরিণত হয়েছে। প্রত্যেকটি ব্রীজের উপর কংক্রিটের একাধিক গতিরোধক থাকায় গাড়ীর স্বাভাবিক গতি বিঘ্নিত হচ্ছে। মহাসড়কের বড় একটি অংশে ফোর লেনের উন্নয়নের কাজ চলমান থাকায় ক্ষণে ক্ষণে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। অতিরিক্ত গাড়ীর চাপে যেকোন সময় দীর্ঘ যানজটের শঙ্কা করছেন তারা।

এ বিষয়ে ফোর লেন প্রকল্পের পরিচালক জিকরুল হাসান উন্নয়ন কাজ চলমান থাকায় তার কিছুটা প্রতিকন্ধকতা থাকার কথা স্বীকার বলেন: প্রতিবন্ধকতা মোকাবিলায় সব রকমের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। বিভিন্ন স্থানে ইত্যেমধ্যে বিকল্প সড়ক ও বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। ঈদ যাত্রায় অতিরিক্ত গাড়ীর চাপ সামাল দিতে কোন সমস্যা হবে না বলে জানান তিনি।

টাঙ্গাইল পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় বলেন: যানজটমুক্ত ও নিরাপত্তার বিষয়টিকে সামনে রেখে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। মহাসড়কটিকে তিনটি ভাগে ভাগ করে আলাদা আলাদা টিম গঠন করা হয়েছে। নিয়মিত ৫০০ পুলিশ সদস্যের সাথে ভ্রাম্যমান ৪০টি মোটরসাইকেল টিম সার্বক্ষণিক নিয়োজিত আছে। এছাড়াও প্রশাসন, সিভিল সোসাইটি ও পরিবহণ কর্তৃপক্ষকে সাথে একটি সমন্বয় কমটি গঠন করা হয়েছে।

শেয়ার করুন: