চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ইরফানের ব্যাটে সাকিবের মোহামেডানের জয়

ব্যাট হাতে অসাধারণ ফিফটির পর বল হাতে দ্রুতই ৩ উইকেট নিয়ে পারটেক্স অধিনায়ক তাসামুল জাগিয়েছিলেন জয়ের আশা। কিন্তু ইরফান শুক্কুরের অসাধারণ ফিনিশিংয়ে মোহামেডানই হেসেছে শেষ হাসি।

পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাবকে ৬ উইকেটে হারিয়ে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ টি-টুয়েন্টিতে জয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছে সাকিব আল হাসানের সাদা-কালো শিবির।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার মিরপুরে রাতের ম্যাচে পারটেক্সের দেয়া ১৫৮ রানের লক্ষ্য ১৪ বল ও ৬ উইকেট হাতে রেখে তাড়া করে ফেলে মোহামেডান। জয়ের নায়ক ইরফান ৫২ রানে অপরাজিত থাকেন। মারেন ৫টি চার ও দুটি ছক্কা।

নাদিফ চৌধুরী ২৩ বল খেলে ২৭ রানে অপরাজিত থাকেন। পঞ্চম উইকেটে তাদের ৮০ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি বদলে দেয় ম্যাচের চেহারা।

বিজ্ঞাপন

মাহমুদুল হাসান ৩৮, পারভেজ হোসেন ইমন ১৭, শামসুর রহমান শুভ করেন ১৯ রান। প্রথম বলেই আউট হন সাকিব। তাসামুল মোহামেডান অধিনায়ককে বোল্ড করে জাগিয়েছিলেন হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা। আগের বলে ইমনকে এলবিডব্লিউ করেন এ অফস্পিনার।

তাসামুলের দ্বিতীয় ও ইনিংসের চতুর্থ ওভারের প্রথম দুই বলে জোড়া শিকারে চমক জাগায় পারটেক্স। কিন্তু ইরফান ও নাদিফের প্রতিরোধে সেটি সম্ভব হয়নি। তাসামুল ৩ ওভারে ১৮ রান দিয়ে নেন ৩ উইকেট। ইমরান আলি নিয়েছেন একটি উইকেট।

শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করে আব্বাস মুসা ও তাসামুলের ব্যাটে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৫৭ রানের লড়াকু সংগ্রহ গড়ে পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাব। আব্বাস ৪৪ বলে ৬৪ ও তাসামুল ৫৬ বলে ৫৯ রান করেন।

দুই ম্যাচ বিশ্রামের পর একাদশে ফেরা মোহামেডান পেসার তাসকিন আহমেদ নেন ২টি উইকেট। একটি করে উইকেট নিয়েছেন সাকিব ও আবু জায়েদ রাহি। মেডেন উইকেট নিয়ে বোলিংয়ের সূচনা করলেও শেষ পর্যন্ত ৪ ওভারের কোটা শেষ করেন ৩১ রান খরচায়।