চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ইউরোর আগেই রিয়ালে পগবা

ফ্রান্সের বিখ্যাত পত্রিকা লে’কিপে শুক্রবার প্রথম পাতায় শিরোনাম করেছে ‘চানট ডু ডার্ট’। সঙ্গে পল পগবার বিশাল একটি ছবি। ফরাসি ভাষার শিরোনামের বাংলা করলে দাঁড়ায় ‘বিচ্ছেদের সুর’। মানে পগবার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ছাড়ার সম্ভাবনা আবারও টেবিলে ফিরে এসেছে।

ইনজুরির কারণে বেশ কিছুদিন ধরেই মাঠের বাইরে পগবা। গোড়ালির চোট কাটিয়ে মাঠে ফেরার কাছাকাছি আছেন। শীর্ষ চারে থেকে লিগ শেষ করতে হলে পগবাকে খুবই দরকার ম্যানইউ কোচ ওলে গানা সোলশেয়ারের।

পগবার মাঠে ফেরা ম্যানইউ’র মতো রিয়াল মাদ্রিদের জন্যও অনেকটা আনন্দের। কারণ এই সুযোগে তার ফর্ম পরখ করে নিতে পারবে স্প্যানিশ জায়ান্টরা। লে’কিপের দাবি, ইংল্যান্ড ছাড়তে এখনো ‘বদ্ধপরিকর’ বিশ্বকাপজয়ী ফরাসি মিডফিল্ডার, যার সমস্ত সম্ভাবনা পরের গ্রীষ্মেই এবং তার পছন্দের গন্তব্য হিসাবে রয়ে গেছে বার্নাব্যুই।

বিজ্ঞাপন

গত গ্রীষ্মের দলবদলের বাজারে ব্যর্থ হলেও আশা ছাড়েননি পগবা। সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে ম্যানইউ’র জন্য বিপদও বাড়ছে। ওল্ড ট্রাফোর্ডে দ্রুতই চুক্তির আয়ু শেষ হয়ে আসছে জুভেন্টাসের সাবেক তারকার। দলবদল ইস্যুতে পগবার চুক্তির মেয়াদকাল ফুরিয়ে আসা ম্যানইউর জন্য বিপরীত কাজ করবে।

নতুন চুক্তি না হলে সবমিলিয়ে ১২ মাস সময় আছে পগবা-ম্যানইউ’র হাতে। লে’কিপে বলছে, ইউনাইটেড ২০২০ সালেই পগবাকে বিক্রি করার জন্য আরও বেশি তাড়াহুড়ো করবে বলে আশা করা যেতে পারে। তাকে ২০২১ সালে ফ্রি-ট্রান্সফারে ছেড়ে দেয়া এড়াতে এটা করবে দলটি। নয়ত রেড ডেভিলদের বর্তমান প্রত্যাশিত মূল্য ১৫০ মিলিয়ন ইউরোর চেয়ে কম দামে আলোচনা করতে বাধ্য হতে হবে।

ফরাসি পত্রিকাটির দাবি, সবদিক বিবেচনায় পগবার ইস্যুটা ২০২০ ইউরোর আগেই সম্পন্ন হতে পারে। ওই টুর্নামেন্টে তার পারফরম্যান্স এবং নতুনভাবে কোনো ইনজুরি হলে অনেক হিসাব-নিকাশ পাল্টে যেতে পারে।

শেয়ার করুন: