চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আয়নাবাজির ৪, অমিতাভ রেজার ৪৩!

মাস খানেকের মধ্যে নিজের তৃতীয় ছবি ঘোষণা দিতে যাচ্ছেন অমিতাভ রেজা চৌধুরী…

বাংলা চলচ্চিত্রের ইতিহাসে সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং দশক মনে করা হয় গত দশককে (২০১০-২০১৯)। প্রযুক্তির উৎকর্ষতার ফলে ডিজিটাল ফরম্যাটে চলচ্চিত্র নির্মাণ যেমন সহজ হয়েছে, সেই সঙ্গে সঙ্গে দেখার মাধ্যমটিতেও এসেছে বৈপ্লবিক পরিবর্তন। দর্শক শুধু আর সিনেমা হলের ভরসায় থাকছেন না! গেল দশকে নির্মিত যেসব ছবি আলোচনায়, তারমধ্যে ব্যবসাসফল ছবির সংখ্যা হাতে গোনা!

যে ছবি দর্শক হুমড়ি খেয়ে সিনেমা হলে গিয়ে দেখেছেন এবং প্রশংসা পেয়েছে সর্বস্তরের মানুষের- তারমধ্যে অন্যতম ছবি ‘আয়নাবাজি’। ছবিটি মুক্তির চার বছর পূর্ণ করলো বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর)। তার ঠিক পর দিন, অর্থ্যাৎ বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) আয়নাবাজির স্রষ্ঠা অমিতাভ রেজা পূর্ণ করতে যাচ্ছেন ৪৩ বছর! পা রাখতে যাচ্ছেন ৪৪ বছরে!

বিজ্ঞাপন

২০১৬ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর দেশের গুটি কয়েক সিনেমা হলে মুক্তি পায় অমিতাভ রেজার ‘আয়নাবাজি’। সপ্তাহ ঘুরতেই পাল্টে যায় চিত্র! বাড়তে থাকে হল সংখ্যা। ধীরে ধীরে দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিদেশেও প্রদর্শিত হয়। চারদিক থেকেই ভূয়সী প্রশংসা আসতে থাকে।

বিজ্ঞাপন

মুক্তির চার বছর পরেও আয়নাবাজি নিয়ে আহ্লাদে আটখানা বাংলার সিনেমাপ্রেমী দর্শক! চলচ্চিত্রের বিভিন্ন ভার্চুয়াল গ্রুপগুলোতে এখনও ছবিটি নিয়ে আলোচনা, তর্ক কিংবা রিভিউ চোখ এড়ায় না।

তবে আয়নাবাজি নিয়ে এতোটা উচ্ছ্বসিত নন অমিতাভ রেজা। বললেন, ‘আয়নাবাজি নিয়ে বিশেষ উত্তেজনা নেই’। কিন্তু সাধারণ দর্শক তো ছবিটিকে এখনো মাইলফলক হিসেবে বিবেচনা করেন, তার কী হবে?

রাজনৈতিক গল্পে নির্মিত অমিতাভ রেজার ‘বন্ধু অথবা বন্দুকের গল্প’র পোস্টার

নির্মাতার উত্তর, ‘চার বছর আগে বাংলাদেশে খুব ভালো সিনেমা ছিলো না, ঢাকায় পলিটিক্যাল অস্থিরতা সেই মুহূর্তে ছিলো না, মানুষ তখনও সিনেমা হলে যেত। তাছাড়া আমাদের টিমের মার্কেটিং পলিসি দারুণ ছিলো, আদিল ভাইয়ের মার্কেটিং ডিজাইনটা ক্যাচ করে গেছে। মানুষের কাছে তারা ‘আয়নাবাজি’র আওয়াজটা পৌঁছাতে পেরেছে। তারপরেও এসব ছবি ফিনান্সিয়াল ভায়াবল না।’

আয়নাবাজি মুক্তির পর চার বছর হয়ে গেল। প্রথম ছবির পরেই অমিতাভ রেজা আবারও ফিরে গেলেন বিজ্ঞাপন নির্মাণে। শুটিং শেষ করেছেন নিজের দ্বিতীয় ছবি ‘রিক্সা গার্ল’-এর। পাশাপাশি টুকটাক কাজ করেছেন টিভি ফিকশন এবং ওটিটি প্লাটফর্মে। এরমধ্যে ওটিটিতে ‘বন্ধু অথবা বন্দুকের গল্প’ এবং ‘ঢাকা মেট্রো’ তার উল্লেখযোগ্য কাজ।

ফ্যান্টাসি, প্রেম কিংবা ফ্যামিলি ড্রামা জয়জয়কারের সময়ে সমাজ, রাজনীতির কথা এই সময়ের নির্মাণে প্রায় অনুপস্থিত। সেই হিসেবেও ব্যতিক্রম অমিতাভ রেজা। স্ট্রিমিং প্লাটফর্ম আইফ্লিক্স-এ মুক্তিপ্রাপ্ত এই নির্মাতার অন্যতম পছন্দের একটি কাজ ‘বন্ধু অথবা বন্দুকের গল্প’। পুরোপুরি রাজনৈতিক গল্পে নির্মিত এই শর্টফিল্মটি নিয়েও আছে নির্মাতার আক্ষেপ। কতজন দর্শক এই চলচ্চিত্রটির নাম জানেন?

দ্বিতীয় ছবি ‘রিক্সা গার্ল’ নিয়ে নির্মাতা বলেন, ‘রিক্সা গার্ল’ প্রায় শেষের পথে। শুধু অ্যানিমেশনের একটু কাজ বাকি। এটাও হয়তো শেষ হয়ে যেত, যদি মহামারীর মুখোমুখি আমাদের না দাঁড়াতে হতো। সব মিলিয়ে অন্তত দু’মাস পিছিয়ে গেলাম। এই সময়ে হয়তো রিলিজ ই হয়ে যেত। তবে আগামি তিন মাসের মধ্যে ‘রিক্সা গার্ল’ এর আন্তর্জাতিক রিলিজ হবে।

দেশের দর্শক কবে দেখবে? এমন প্রশ্নে নির্মাতা বলেন, ‘রিক্সা গার্ল’ এর সেলস অ্যাজেন্ট জার্মান, আন্তর্জাতিক রিলিজের বিষয়টি তারাই দেখছেন। আর লোকাল রিলিজের বিষয়টি নির্ভর করবে, আন্তর্জাতিক রিলিজ হয়ে যাওয়ার পরে।

অমিতাভ রেজার দ্বিতীয় সিনেমা ‘রিক্সা গার্ল’ এর পোস্টার

তবে তার আগে ওটিটিতে আসছে এই নির্মাতার আরো একটি কাজ। যেটি শিগগির দেখা যাবে ওটিটি প্লাটফর্ম বিনজ্ এ। নতুন এই কাজটি নিয়ে অমিতাভ রেজা বেশ আত্মবিশ্বাসী। বললেন, সাম্প্রতিক সময়ে আমার প্রিয় কাজগুলোর মধ্যে অন্যতম একটি কাজ করেছি। এটিও শর্টফিল্ম। অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহেই বিনজ্ এ দেখা যাবে। এটি মূলত ‘বাঘ বন্দি সিংহ বন্দি’ নামে পাঁচ নির্মাতার একটি প্রজেক্ট। এর প্রযোজনা করেছেন আবু শাহেদ ইমন।

কথা প্রসঙ্গে ওটিটি প্লাটফর্ম নিয়েও নিজের হতাশার কথা জানান এই নির্মাতা। বলেন, ওটিটিতে আরো কিছু কাজের জন্য আমরা প্রস্তুত হচ্ছি। যদিও ওটিটি প্লাটফর্মের যে সম্ভাবনা ছিলো, সেটা শ্লীল-অশ্লীল বিতর্কের কারণে সামগ্রিকভাবে বহু পেছনে চলে গেছি।

তবে ‘আয়নাবাজি’র চতুর্থ বছর পূর্তির দিনে চ্যানেল আই অনলাইনকে আরো একটি সুসংবাদ দিলেন অমিতাভ রেজা। বললেন, মাস খানেকের মধ্যে নতুন ছবির ঘোষণা দিবো। এটি হবে আমার তৃতীয় ছবি। ইতোমধ্যে এর গল্প, চিত্রনাট্য সব প্রস্তুত।