চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আমি তরুণ না, স্ট্রং: ঝন্টু

ঢাকাই সিনেমার আলোচিত নির্মাতা ও চিত্রনাট্যকার দেলোয়ার জাহান ঝন্টু। বয়স তার ৭৫। এখনও পুরোদমে কাজ করে যাচ্ছেন এই নির্মাতা। গেল ফেব্রুয়ারিতে সর্বশেষ মুক্তি পেয়েছে তার নির্মিত ‘তুমি আছো তুমি নেই’ নামে একটি সিনেমা। হাতে আছে অন্তত আরো তিনটি সিনেমা!

এই বয়সে বেশিরভাগ মানুষ যেখানে বার্ধক্যজনিত নানা জটিলতায় ভুগেন, সেখানে তিনি এখনও শুটিং বহর নিয়ে করে যাচ্ছেন একের পর এক কাজ। এই প্রাণশক্তি তিনি কোথায় পান! নিজেকে কি এখনও তরুণ মনে করেন?

তুখোড় এই নির্মাতার কাছে এমন প্রশ্নই রেখেছিলেন চ্যানেল আইয়ের নিয়মিত আয়োজন ‘তিনশো সেকেন্ড’ এর উপস্থাপক শাহরিয়ার নাজিম জয়। যেখানে ঝন্টু স্পষ্ট ভাষায় জানান, তিনি তরুণ নন বরং স্ট্রং।

বিজ্ঞাপন

একই অ্যাপিসোডে সাম্প্রতিক ঝন্টুর বেশকিছু বিতর্কিত মন্তব্য সম্পর্কেও জানতে চান জয়। বিশেষ করে দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বেশি সিনেমা নির্মাতা হিসেবে ঝন্টুর নিজেকে দাবী করার বিষয়টি নিয়ে পরিষ্কার মন্তব্য করেন এই নির্মাতা।

ঝন্টু জানান, এশিয়া মহাদেশে না, সমগ্র পৃথিবীতে আমার চাইতে বেশি চলচ্চিত্রের গল্প কেউ লেখেনি। ‘গল্প লেখেনি’ অংশটুকু কেটে ফেলে দিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণ করেনি- প্রচার করা হয়েছে। আমি কি ফিডার খাই যে বলবো, আমার চেয়ে বেশি চলচ্চিত্র কেউ নির্মাণ করেনি! ৩২৩টা গল্প নিয়ে ৩২৩ সিনেমা হয়েছে, পৃথিবীর ইতিহাসে এমন কেউ নাই। কিন্তু দেলোয়ার জাহান ঝন্টুর গল্পে হয়েছে। এটা বাংলাদেশের গর্ব।

সিনেমার এই দীর্ঘ ক্যারিয়ারে প্রাপ্য সম্মান কি সমাজ, রাষ্ট্র ও মানুষের কাছ থেকে পেয়েছেন? এমন প্রশ্নে ঝন্টু বলেন, একজন মন্ত্রীকে রিক্সাওয়ালা চেনে না, একজন কাপড়ের দোকানদার মন্ত্রীকে চেনে না, একজন মাছওয়ালাও মন্ত্রীকে চেনে না- একজন বড় অফিসার মন্ত্রীকে চেনেন। তিনি দেলোয়ার জাহান ঝন্টুকেও চেনেন, পাশাপাশি একজন মাছওয়ালা, রিক্সাওয়ালা ও কাপড়ের দোকানদার ঝন্টুকে চেনেন। এরচেয়ে বড় প্রাপ্তি আর কী হতে পারে!

বিজ্ঞাপন