চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আমদানি-রপ্তানিতে গ্রাহক ভোগান্তি কমাতে চালু হলো ই-পেমেন্ট

গ্রাহক ভোগান্তি কমিয়ে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য সহজ করতে সোনালী ব্যাংকের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক সই করেছে আমদানি ও রপ্তানি প্রধান নিয়ন্ত্রকের দপ্তর সিসিআইঅ্যান্ডই। এর ফলে দুই প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শুরু হয়েছে ই-পেমেন্ট কার্যক্রম।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি “সোনালী পেমেন্ট গেটওয়ে” নামের এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

এ সময় তিনি বলেন, ব্যবসা-বাণিজ্য পরিচালনার ফি/চার্জ এখন থেকে সোনালী ব্যাংকের মাধ্যমে অনলাইনে জমা প্রদান করা যাবে।

ডিজিটাল সেবা নিশ্চিত করে ইজ অব ডুয়িং বিজনেস সূচকে বাংলাদেশ দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। ব্যবসা-বাণিজ্য সহজ করা হয়েছে। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ডিজিটাল পদ্ধতিতে সেবা প্রদান করছে। বেশিরভাগ কার্যক্রম ইতোমধ্যে ডিজিটাল সেবার আওতায় এসেছে।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, গত বছরের জুলাই মাস থেকে অনলাইন লাইসেন্সিং মডিউলের মাধ্যমে ব্যবসায়ীদের আমদানি-রপ্তানি, ইনডেন্টিং এবং শিল্প নিবন্ধন সনদপত্র প্রদান সেবা অনলাইনে প্রদান করা হচ্ছে। প্রতিযোগিতামূলক  বিশ্ববাণিজ্যে ডিজিটাল সেবা প্রদান খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, বাংলাদেশ সফল ভাবেই সে কাজটি করছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ই-পেমেন্ট সেবা চালুর ফলে ব্যবসা বাণিজ্যের ফি/চার্জ প্রদানের ক্ষেত্রে কোন জটিলতা থাকবে না। দেশে এবং আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের সব ক্ষেত্রে ডিজিটাল সুবিধা নিশ্চিত করতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কাজ করছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন স্বপ্ন নয়, বাস্তব। দেশের গ্রামের মানুষও ডিজিটাল সুবিধা ভোগ করছে।

সমঝোতা স্মারকে আমদানি ও রপ্তানি অধিদপ্তরের পক্ষে প্রধান নিয়ন্ত্রক সোলেমান খান এবং সোনালী ব্যাংকের পক্ষে চিফ ফিনানশিয়াল অফিসার সুভাস চন্দ দাস স্বাক্ষর করেন।

সোনালী পেমেন্ট গেটওয়ে এর মাধ্যমে ক্যাশ অন কাউন্টার, অনলাইন এ্যাকাউন্ট ট্রান্সফার, মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস, ডেভিড-কেডিট কার্ডসহ অন্যান্য পেমেন্ট সিসটেম ব্যবহার করে অন-লাইনে পেমেন্ট করা যাবে। এর ফলে ব্যবসায়ীদের সময়, শ্রম এবং ব্যবসা পরিচালনা ব্যয় কমে আসবে।

অনুষ্ঠানের আরো উপস্থিত ছিলেন, বাণিজ্য সচিব ড. জাফর উদ্দিন, সোনালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও আতাউর রহমান প্রধান এবং বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন সব বিভাগীয় প্রধানেরা।