চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগের ‘হামলা’

লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগ হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এতে পুলিশের একজন কর্মকর্তাসহ যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগের অন্তত ১০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

সোমবার বিকেলে সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জ বাজার গণমিলনায়তনের সামনে এ ঘটনা ঘটে। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের এ আয়োজন ভণ্ডুল করতে বিতর্কিত ছাত্রলীগ নেতা কাজী মামুনুর রশিদ বাবলু ও তার অনুসারীরা এ ঘটনা ঘটায় বলে অভিযোগ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের।

বিজ্ঞাপন

এ সময় ঘটনাস্থলে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকু, সাধারণ সম্পাদক নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বিজন বিহারী ঘোষ, সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম চৌধুরী, স্থানীয় চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বাবুলসহ জেলা পর্যায়ের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

হামলাকারীদের বাধা দিতে গিয়ে পুলিশসহ স্থানীয় যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের অন্তত ১০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে। আহতদের বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

আহতদের মধ্যে রয়েছেন, যুবলীগ নেতা আব্দুর রাজ্জাক রিংকু, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা তাজু ভূঁইয়া, রোমেল, সৌরভ, পারভেজ, ছাত্রলীগ নেতা মামুন, শাহাদাত, ফিরোজ ও পুলিশের এসআই সোহেল মিয়াসহ ১০ জন।

পুলিশ জানায়: আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ আয়োজিত র‌্যালির পর আলোচনা সভায় স্লোগান দেওয়াকে কেন্দ্র করে চন্দ্রগঞ্জ থানা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কাজী বাবলুর অনুসারীরা ইউনিয়ন যুবলীগের নেতাকর্মীদের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে উভয় পক্ষের মারামারি, হাতাহাতি ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। পরে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ লাঠিচার্জ করে তাদেরকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। জেলা আওয়ামী লীগের নেতারাও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেন।

চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ জানান: তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ ও ছাত্ররীগের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

পরে গণমিলনায়তনে কেক কেটে আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করে নেতাকর্মীরা।