চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

অভিষেকে উজ্জ্বল হাসান, ফিরে স্বরূপে সাকিব

শুরুটা করে দিয়েছিলেন মোস্তাফিজুর রহমান। বাঁহাতি পেসারের জোড়া ধাক্কার পর সাকিব আল হাসানের তিন দান, শেষে আরেক উইকেট। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ইনিংসে তখন কাঁপাকাঁপি অবস্থা। অভিজ্ঞদের দেখানো পথে পরে জ্বললেন অভিষিক্ত হাসান মাহমুদও। তার ঝটপট তিন উইকেটে সফরকারীরা কেবল ১২৩ রানের লক্ষ্য দিতে পেরেছে বাংলাদেশকে।

বুধবার মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অধিনায়ক হিসেবে যাত্রা শুরু করা তামিম ইকবাল। বোলাররা সম্মিলিত তোপ দেগে নেতার সিদ্ধান্তের যথার্থতা বুঝিয়েছেন। ৩২.২ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে কেবল ১২২ রান তুলতে পেরেছে উইন্ডিজ।

সকালে খেলা মাঠে গড়াতে না গড়াতেই বাগড়া দেয় বৃষ্টি। তার আগে-পরে তোপ দাগেন মোস্তাফিজ। প্রথম আঘাত হানেন তিনি। দ্বিতীয় ওভারেই সাফল্য এনে দেন। সুনীল আমব্রিসকে (৭) এলবিডব্লিউ করে সাজঘরের পথ দেখান। ফিজের ভেতরে ঢুকতে থাকা বল ব্যাটে আনতে পারেননি ক্যারিবীয় ওপেনার, রিভিউ নিয়েও পার পাননি।

বৃষ্টিতে ঘণ্টাখানেক খেলা বন্ধ থাকার পর আবারও দৃশ্যপটে মোস্তাফিজ। তার বলে গালিতে গা অনেকটা বাতাসে ভাসিয়ে দর্শনীয় ক্যাচ নেন লিটন দাস। জশুয়া ডি সিলভাকে ৯ রান করে ফিরতে হয়।

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা সাকিব এনে দেন তৃতীয় সাফল্য। বোল্ড করে সাজঘরে পাঠান ১২ রান করা আন্দ্রে ম্যাক্কার্থিকে।

খানিক পর মুশফিকের সহযোগিতায় নিজের দ্বিতীয় উইকেটটি তোলেন সাকিব। অধিনায়ক জেসন মোহাম্মদ ছিলেন ১৭তে, সাকিবের বল ধরে তাকে স্টাম্পিং করেন মুশি।

বিজ্ঞাপন

পরের ওভারে এনক্রমাহ বোনেরকে রানের খাতা খোলার আগেই এলবিডব্লিউ করেন সাকিব। তুলে নেন নিজের তৃতীয় সাফল্য।

সেখান থেকে খানিকটা প্রতিরোধ। ফিফটি পেরনো জুটি গড়েন কাইল মেয়ার্স ও রোভম্যান পাওয়েল। দুজনে যোগ করে ঝটপট ৫৯ রান।

জুটি ভাঙেন ২১ বছর বয়সী অভিষিক্ত হাসান মাহমুদ। উইকেটের পেছনে মুশফিকের ক্যাচ বানান ২টি করে চার-ছয়ে ৩১ বলে ২৮ করা পাওয়েলকে। পরের বলেই রেমন রেইফারকে এলবিডব্লিউ করে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনাও জানিয়েছিলেন ডানহাতি তরুণ পেসার।

সর্বোচ্চ ৪০ করা মেয়ার্সকে সাজঘরে পাঠান মেহেদী মিরাজ। ৪ চার ও এক ছয়ে ৫৬ বলের ইনিংস তার।

এরপর আকিল হোসেনকে (১) লিটনের ক্যাচ বানিয়ে অভিষেক রাঙান হাসান। তুলে নেন নিজের তৃতীয় সাফল্য। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা সাকিব নিজের চতুর্থ উইকেটটি তুলে শেষ টানেন ক্যারিবীয় ইনিংসের। ফেরান আলঝারি জোসেফকে।

৭.২ ওভারে ২ মেডেনে মাত্র ৮ রানে ৪ উইকেট নিয়ে দিনের সেরা সাকিব। ২৮ রানে ৩ উইকেট নিয়েছেন হাসান। ২টি মোস্তাফিজের। একটি মিরাজের। কেবল উইকেট শূন্য রুবেল, ৬ ওভারে ৩৪ রান খরচায়।

বিজ্ঞাপন