চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

অভিযোগ মিথ্যে হলে ৭ ম্যাচ নিষেধাজ্ঞার ঝুঁকিতে নেইমার

নেইমারের অভিযোগ গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছে লিগ ওয়ান কর্তৃপক্ষ। মার্শেইয়ের বিপক্ষে ম্যাচে পিএসজির ব্রাজিলিয়ান তারকার সঙ্গে আসলেই বর্ণবিদ্বেষমূলক আচরণ করা হয়েছিল কিনা তা তদন্তে একটি কমিটি গঠন করেছে ফ্রেঞ্চ ফেডারেশন।

একইসঙ্গে অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া ও আলভারো গঞ্জালেসের মধ্যকার গোলমালের কারণও খতিয়ে দেখবে কমিটি। রোববারের ম্যাচে মার্শেইয়ের ডিফেন্ডার গঞ্জালেসের গায়ে থুথু ছিটিয়েছিলেন পিএসজি উইঙ্গার!

বিজ্ঞাপন

বুধবার এ নিয়ে আলোচনায় বসবে লিগের ডিসিপ্লিনারি কমিটি। সভায় ম্যাচের রিপোর্ট জমা দেবেন রেফারি জেরোমে ব্রিসার্ড। ফ্রেঞ্চ ফেডারেশনের নিয়ম অনুযায়ী তদন্ত নেইমারের বিপক্ষে গেলে ৭ ম্যাচ নিষিদ্ধ হতে পারেন তিনি।

অন্যদিকে, ব্রাজিলিয়ান তারকাকে ‘বানর’ বলেছেন এমন অভিযোগ প্রমাণিত হলে সর্বোচ্চ ১০ ম্যাচ পর্যন্ত নিষিদ্ধ হওয়ার ঝুঁকিতে আছেন মার্শেইয়ের ডিফেন্ডার আলভারো গঞ্জালেস।

নেইমারের সতীর্থ ডি মারিয়াও বিপদমুক্ত নন। আলভারোর গায়ে থুথু দেয়ার অপরাধে তাকে ৬ ম্যাচ নিষেধাজ্ঞা দিতে পারে ডিসিপ্লিনারি কমিটি।

বিজ্ঞাপন

গত রোববার রাতে লিগ ওয়ানের ম্যাচে অপ্রীতিকর লড়াইয়ে জড়িয়ে পড়েছিলেন পিএসজি ও মার্শেইয়ের খেলোয়াড়রা। ম্যাচে ৫টি লাল কার্ডসহ আরও ১২বার খেলোয়াড়দের হলুদ কার্ড দেখাতে হয়েছে রেফারিকে।

ম্যাচে আলভারোর গায়ে হাত তোলার অভিযোগে লাল কার্ড দেখেছেন নেইমার, একই খেলোয়াড়কে থুথু ছিটিয়ে লাল কার্ড দেখেছেন ডি মারিয়া। মার্শেইয়ের কাছে ১-০ গোলে হেরে শেষ করেছে পিএসজি।

মাঠের লড়াই শেষে আলভারোকে ইনস্টাগ্রামে ধুয়ে দিয়েছেন নেইমার। মার্শেইয়ের খেলোয়াড়কে মুখে ঘুষি মারতে পারেননি বলে ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা গেছে তাকে। ম্যাচের রেফারিং নিয়েও হতাশা প্রকাশ করেছেন বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফুটবলার।

‘আমাকে লাল কার্ডের শাস্তি দেয়া হয়েছে। কারণ, যে আমার ক্ষতি করেছে, তাকে আঘাত করতে চেয়েছিলাম। ভেবেছিলাম, আমি কিছু না করে মাঠ ছাড়তেই পারি না। কারণ বুঝতে পেরেছিলাম, দায়িত্বে থাকা লোকেরা কিছু করবে না, দেখবে না বা বিষয়টি উপেক্ষা করে যাবে।’

‘আমি কালো, একজন কালোর সন্তান এবং একজন কালোর নাতিও। আমি গর্বিত এবং নিজেকে কারও চেয়ে আলাদা চোখে দেখি না। গতকাল চেয়েছিলাম, ম্যাচের দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিরা (রেফারি ও অন্য অফিসিয়াল) নিজেদের নিরপেক্ষ অবস্থান দেখাবেন এবং বোঝার চেষ্টা করবেন যে, কুসংস্কারাচ্ছন্ন মনোভাবের কোনো জায়গা নেই।’

নেইমার পাশে পাচ্ছেন পিএসজিকেও। ২৮ বছর বয়সী তারকাকে সমর্থন দিয়ে ক্লাবটি বিবৃতি দিয়ে বলেছে, ‘ক্লাব পরিষ্কার বলে দিচ্ছে যে সমাজ, ফুটবল কিংবা আমাদের জীবনে বর্ণবিদ্বেষের কোনো জায়গা নেই। সবাইকে বর্ণবৈষম্যের বিপক্ষে এক হয়ে দাঁড়াতে হবে।’