চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘হালাল পণ্যের রপ্তানি বাজার দখলের সময় এখন’

বললেন বাণিজ্য সচিব

বাণিজ্যসচিব ড. মো. জাফর উদ্দীন বলেছেন, বিশ্বব্যাপী হালাল পণ্যের বিশাল বাজার সৃষ্টি হয়েছে। দিনদিন এ বাজার বড় হচ্ছে। এখন আমাদের সুযোগ এসেছে এই হালাল পণ্যের রপ্তানি বাজার দখল করার।

বুধবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় আয়োজিত “হালাল পণ্যসহ সকল পণ্যের সার্টিফিকেশন সক্ষমতা ও হালাল পণ্য রপ্তানির সম্ভাবনা” শীর্ষক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বিজ্ঞাপন

বাণিজ্য সচিব বলেন, আমাদের হালাল পণ্য রপ্তানির সক্ষমতা রয়েছে, এ সুযোগ কাজে লাগাতে হবে। ২০২৪ সালে বাংলাদেশ এলডিসি থেকে বেরিয়ে উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হচ্ছে। তখন রপ্তানি বাণিজ্যে জিএসপি সুবিধাসহ বিভিন্ন সুবিধা থাকবে না, যা রপ্তানির ক্ষেত্রে বড় চ্যালেঞ্জ।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সফলভাবে কাজ করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বিশ্ববাজারে উন্নত দেশের সাথে প্রতিযোগিতা করেই এগিয়ে যেতে হবে। রপ্তানি বাণিজ্য বাড়াতে নতুন রপ্তানি পণ্য ও বাজার সম্প্রসারণের বিকল্প নেই। হালাল পণ্যসহ সব পণ্যের সার্টিফিকেশন সক্ষমতা অর্জন ও রপ্তানি বাড়াতে হবে। বাণিজ্যমন্ত্রীর নিদের্শনা মোতাবেক বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এবিষয়ে কাজ করে যাচ্ছে। এ ক্ষেত্রে আমাদের বর্তমান রপ্তানি দশগুণ বাড়ানো সম্ভব বলে মনে করেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

ড. জাফর উদ্দীন বলেন, হালাল পণ্য রপ্তানির জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়, বিভাগ এবং বেসরকারি খাতকে এগিয়ে আসতে হবে। পেশা দারিত্বের মনোভাব নিয়ে এগিয়ে গেলে আমরা হালাল পণ্যের বিশ্ববাজারে বড় অবদান রাখতে পারবো। এজন্য করণীয় নির্ধারণ করতে হবে। অনেক দেশ হালাল সার্টিফিকেশন অথরিটি গঠন করে কাজ করছে। আমাদেরও সেসব দেশের অভিজ্ঞতা শেয়ার করার সুযোগ আছে।

তিনি আরো বলেন, নিজেদের সক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে প্রয়োজনীয় শর্ত পূরণ করে রপ্তানি বৃদ্ধি করতে হবে। আমাদের পর্যাপ্ত হালাল পণ্য এবং দক্ষ জনবল রয়েছে, প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আমরা আরও দক্ষ জনবল গড়ে তুলতে পারি। হালাল পণ্য রপ্তানির ক্ষেত্রে নগদ আর্থিক সহযোগিতা বাড়ানো যেতে পারে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (আইআইটি)  হাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে কর্মশালায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যারয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক রুমানা হক।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এ এইচ এম সফিকুজ্জামানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠোনে আরো উপস্থিত ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (রপ্তানি) মো. ওবায়দুল আজম, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা এবং এ খাতের ব্যবসায়ী নেতারা।