চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘সুযোগ’ কাজে লাগাতে চান ইমরুল

চার মাস পর সোমবার মিরপুরের ইনডোরে ব্যাটিং অনুশীলন করলেন ইমরুল কায়েস। করোনা বিরতি কাটিয়ে ব্যাট ধরার আনন্দ ফুটে ওঠে তার চোখেমুখে। দেশে ভাইরাসের প্রকোপ থেকে যাওয়ার পরও অনুশীলন করতে পারাকে অনেক বড় সুযোগ হিসেবে দেখছেন টাইগার ওপেনার।

সামনে ম্যাচের সূচি না থাকায় সময়টাতে স্কিল, ফিটনেসে উন্নতি করতে মরিয়া ইমরুল। শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে ঘাম ঝরিয়ে বিসিবির মিডিয়া বিভাগের ভিডিও ব্রিফিংয়ে জানালেন নানা ভাবনার কথা।

বিজ্ঞাপন

‘প্রায় চার মাস পর আসলে ব্যাট ধরলাম, ব্যাটিং করলাম। ভিন্ন অনুভূতি। খুব ভালো লাগছে। যদিও বাসাতে আমরা ওয়ার্কআউট করেছি, রানিং বা জিম করেছি। কিন্তু ব্যাটিং করার অভ্যাস ছিল না। খুব ভালো লেগেছে। আশা করি এই সুযোগটা কাজে লাগাতে পারবো।’

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

‘এখন একটা বিরতি আছে তাতে আমরা স্কিল ও ফিটনেস নিয়ে কাজ করতে পারবো। আমার মনে হয় ভালো সময় খেলোয়াড়দের জন্য, যদি আমরা সময়টা কাজে লাগাতে পারি। তাহলে স্কিল ও ফিটনেসের দিক দিয়ে আরেকধাপ এগিয়ে যেতে পারবো।’

রোববার থেকে শুরু হয়েছে টাইগার ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত অনুশীলন। প্রথমদিন মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন ও শফিউল ইসলাম অনুশীলন করেছেন হোম অব ক্রিকেটে। সোমবার যোগ দেন ইমরুল। চার ক্রিকেটার আগামী এক সপ্তাহ টানা অনুশীলন করবেন।

ব্যক্তিগত ইচ্ছায় যারা অনুশীলন করতে চেয়েছেন কেবল তাদেরকে নিয়েই পরিকল্পনা সাজিয়েছে বিসিবি। খুলনা, সিলেট ও চট্টগ্রামের তিন ভেন্যুতে আরও ছয় ক্রিকেটার শুরু করেছেন মাঠে ফিটনেস অনুশীলন। সারাদেশে মাঠে নামা ক্রিকেটারের সংখ্যা ডাবল ফিগার (১০) ছুঁয়েছে।