চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল স্বয়ংক্রিয়ভাবে সক্রিয় হবার সুযোগ নেই: খায়রুল হক

জাতীয় সংসদে আবার আইন পাশ না হলে সামরিক আইন দিয়ে তৈরি সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল স্বয়ংক্রিয়ভাবে সক্রিয় হবার সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন সাবেক প্রধান বিচারপতি এ বি এম খায়রুল হক।

এর কারণ হিসেবে তিনি বলছেন, ষোড়শ সংশোধনী বাতিল হলে ফিরে আসবে ৭২’র মূল সংবিধান।

Reneta June

সোমবার সর্বসম্মতিক্রমে বিচারপতি অপসারণ সংক্রান্ত সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিল করে দিয়েছেন আপিল বিভাগ। এরপর আলোচনায় আসে বিচারপতি অপসারণে সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল পুনস্থাপিত হবে কিনা।

বিজ্ঞাপন

এ নিয়ে যখন পক্ষে বিপক্ষে আলোচনা, তখন বিষয়টি নিয়ে নিজের মতামত দিয়েছেন তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল করে দেওয়া রায়ের সময়ের প্রধান বিচারপতি।

হাইকোর্টের রায়ে জাতীয় সংসদ সদস্যদের নিয়ে মন্তব্যের বিষয়েও কথা বলেন তিনি।

সাবেক প্রধান বিচারপতি বলেন, সম্মানের সঙ্গে এই রায়ের সঙ্গে একমত নন তিনি। তারপরও অপেক্ষায় আছেন কী করে ষোড়শ সংশোধনী বাতিল হয়েছে তা জানার জন্য।

২০১৪ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর বিচারপতি অপসারণের ক্ষমতা সংসদের কাছে ফিরিয়ে নিতে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী পাশ করা হয়। ওই বছরের ২২ সেপ্টেম্বর তা গেজেট আকারে প্রকাশ করা হয়।

কিন্তু সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিদের অপসারণের ক্ষমতা জাতীয় সংসদের কাছে ন্যস্ত করে আনা
সংবিধানের এই সংশোধনীর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে একই বছরের ৫ নভেম্বর সুপ্রিম কোর্টের নয়জন আইনজীবী হাইকোর্টে একটি রিট করেন।

ওই রিটের চূড়ান্ত শুনানি শেষে ২০১৬ সালের ৫ মে হাইকোর্টের তিন বিচারপতির সমন্বয়ে গঠিত বিশেষ বেঞ্চ সংখ্যাগরিষ্ঠ মতামতের ভিত্তিতে ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে রায় দেন।

এরপর হাইকোর্টের দেয়া ওই রায়ের বিরুদ্ধে ২০১৬ সালের ২৮ নভেম্বর রাষ্ট্রপক্ষ আপিল করে।

বিস্তরিত দেখুন ভিডিও রিপোর্টে: