চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সিনোভ্যাক ভ্যাকসিন অসাধারণ ভূমিকা রাখছে

চীনের বেইজিং ভিত্তিক সিনোভ্যাক ভ্যাকসিন ইন্দোনেশিয়ার স্বাস্থ্যকর্মীদের ওপর অসাধারণ কার্যকর ভূমিকা রাখছে বলে এক গবেষণায় প্রমাণিত।

এনডিটিভির তথ্য মতে, ইন্দোনেশিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী বুদি গুণাদি সাদিকিন মঙ্গলবার এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, তার দেশের ২৫ হাজার স্বাস্থ্যকর্মীর ওপর সিনোভ্যাক ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ দেওয়ার ২৮ দিনের মধ্যে তাদের মধ্যে থেকে ১০০ ভাগ মৃত্যু ঝুঁকি রোধ হয়েছে। সাতদিনের মধ্যে ৯৬ শতাংশ মানুষ হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি গেছেন। এই কর্মীদের ফেব্রুয়ারির শেষের দিকে পর্যবেক্ষণ করা হয়েছিল।

বিজ্ঞাপন

গবেষণার বিষয়টি উল্লেখ করে সাদিকিন আরও জানান, ভ্যাকসিন নেওয়ার পর ইন্দোনেশিয়ার ৯৪ শতাংশ কর্মী সংক্রমণের বিরুদ্ধে সুরক্ষিত। এটি অসাধারণ কার্যক্ষতা রাখছে। তবে এরইমধ্যে চীন, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া এবং ফিলিপিন্সে দেয়া শুরু হয়েছে এই ভ্যাকসিন।

এর আগে গত বছর জুনে সিনোভ্যাক বায়োটেক লিমিটেড দাবি করেছে, তাদের করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন নিরাপদ এবং পরীক্ষায় ৯০ শতাংশ ইতিবাচক ফল পাওয়া গেছে।

২০০৯ সালে সোয়াইন ফ্লুর টিকা বাজারজাত করে আলোচনায় আসে সিনোভ্যাক বায়োটেক। তখন প্রথম কোনো ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি হিসেবে এ টিকা বাজারে আনতে সক্ষম হয় প্রতিষ্ঠানটি।

এদিকে, বর্তমানে উৎপাদন প্রক্রিয়ায় থাকা সম্ভাব্য করোনাভাইরাস ভ্যাকসিনের ৩০ কোটি ডোজ আগেভাগেই পেতে ফরমাশ দিয়ে রাখছে ইউরোপের চার দেশ জার্মানি, ফ্রান্স, ইতালি ও নেদারল্যান্ডস। ব্রিটিশ-সুইডিশ ওষুধ কোম্পানি অ্যাস্ট্রাজেনেকার সঙ্গে চার দেশের একটি জোটের পক্ষ থেকে চুক্তিও করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন