চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সাহেদের মামলার তদন্ত করবে র‍্যাব

করোনা টেস্টের নামে প্রতারণার অভিযোগে গ্রেপ্তার রিজেন্ট গ্রুপ ও রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদের বিরুদ্ধে করা মামলা তদন্তের অনুমতি পেয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‍্যাব)।

গত বৃহস্পতিবার সাহেদের মামলাটি তদন্তের অনুমতি চেয়ে পুলিশ সদর দপ্তরের মাধ্যমে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন পাঠায় র‍্যাব। সেই আবেদনের পরিপেক্ষিতে তারা এই অনুমতি পায়।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার বিকালে এ তথ্য নিশ্চিত করে র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, সাহেদের মামলা তদন্তের অনুমতি দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এখন তার বিরুদ্ধে মামলাটি তদন্ত করবে র‍্যাব।

বিজ্ঞাপন

সাহেদ ও রিজেন্টের এমডি মাসুদ পারভেজ বর্তমানে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) হেফাজতে ১০ দিনের রিমান্ডে আছেন।

আজ মঙ্গলবার মেট্রো রেলের ৭৬ কর্মীর ভূয়া করোনা রিপোর্ট দেয়ার অভিযোগে উত্তরা পশ্চিম থানায় মো. সাহেদসহ পাঁচ জনের বিরদ্ধে প্রতারণা ও জালিয়াতির মামলা করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

গত ৬ জুলাই রাজধানীর উত্তরায় রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযান চালায় র‌্যাব। করোনার এই দুর্যোগকালীন সময়ে নমুনা সংগ্রহ করা হলেও টেস্ট না করে ফলাফল দেয়া, হাসপাতাল পরিচালনার সনদের মেয়াদ না থাকাসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া যায়। পরের দিন হাসপাতালটির উত্তরা ও মিরপুরের দুটি শাখা সিলগালা এবং সাহেদসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা করে র‌্যাব।

মামলার পর সাহেদ ঢাকা থেকে পালিয়ে যান। দেশের বিভিন্ন এলাকায় অবস্থান করে সবশেষ সাতক্ষীরা সীমান্ত দিয়ে দেশত্যাগের চেষ্টা করেন।

গত ৬ জুলাই রিজেন্ট হাসপাতালের উত্তরা ও মিরপুর শাখায় অভিযান চালিয়ে সিলগালা করে দেয় র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। পরদিন ১৭ জনের নাম উল্লেখ করে উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা করে র‌্যাব।

১৫ জুলাই সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার শাকরা কোমরপুর সীমান্ত এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাকে নিয়ে উত্তরায় তার অফিসে তল্লাশি চালিয়ে বিপুল পরিমাণ জাল টাকা জব্দ করা হয়। এই ঘটনায় সাহেদের বিরুদ্ধে উত্তরা পশ্চিম থানা ও সাতক্ষীরায় পৃথক মামলা হয়।

রিজেন্ট হাসপাতালের বিরুদ্ধে করা মামলাটি উত্তরা পশ্চিম থানা থেকে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ-ডিবিকে তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়।

পরে সাহেদ ও রিজেন্টের এমডি মাসুদ পারভেজকে গ্রেপ্তারের পর ওই দিনই তাদের ডিবিতে হস্তান্তর করা হয়।