চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘সালাহর উচিৎ রিয়ালকে ঘৃণা করা’

স্পেনের ক্লাবগুলোর দিক থেকে যেকোনো সময় লোভনীয় প্রস্তাব আসতে পারে, সেসব প্রস্তাবকে ঘৃণার সঙ্গে এড়িয়ে যাওয়ার জন্য মোহামেদ সালাহকে পরামর্শ দিয়েছেন লিভারপুলের সাবেক খেলোয়াড় জন এলরিজ।

রিয়াল মাদ্রিদ-বার্সেলোনার মতো ক্লাবগুলোর থেকে প্রস্তাব এলে মিশরীয় ফরোয়ার্ডকে ভেবেচিন্তে পা ফেলার বুদ্ধি দিয়েছেন সাবেক অলরেড তারকা।

বিজ্ঞাপন

সম্প্রতি অ্যানফিল্ডে সালাহর ‘হতাশা’ নিয়ে শুরু হয়ে গেছে কানাকানি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে মিডজিল্যান্ডের বিপক্ষে অধিনায়কত্ব না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ ২৮ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড। তিনি লিভারপুল ছাড়ার রাস্তা দেখছেন, এমন ইঙ্গিত দিয়েছেন মিশর ফরোয়ার্ডের একসময়কার জাতীয় দল সতীর্থ মোহামেদ আবোউরিকা।

জল্পনার বাতাসে হাওয়া লাগিয়েছেন সালাহ নিজেই। স্প্যানিশ পত্রিকা এএসকে দেয়া সাক্ষাৎকারে করেছেন রিয়াল-বার্সার অকুণ্ঠ প্রশংসা, যাতে অ্যানফিল্ডে তার ভবিষ্যৎ নিয়ে ছিল অনিশ্চয়তার সুরও। তাতেই কান ভারি হয়েছে, বাতাসে ফিসফাস দুই স্প্যানিশ জায়ান্টের কাছ থেকে প্রস্তাব পেয়েছেন মিশরীয় তারকা।

বিজ্ঞাপন

সালাহর মতো একজন তারকা ফুটবলারের কাছে রিয়াল-বার্সার মতো ক্লাবের প্রস্তাব এলে মোটেও অবাক হওয়ার কিছু নেই বলে জানিয়েছেন এলরিজ, ‘সালাহর মতো খেলোয়াড়ের সঙ্গে রিয়াল-বার্সার মতো দলগুলো চুক্তি করতে চাইবে, তাতে অবাক হওয়ার কিছু নেই। আরেকজন হল টটেনহ্যাম হটস্পারের হ্যারি কেইন।’

‘সাদিও মানেকে নিয়েও কথা হয়। আমরা বিশ্বের সেরা কিছু ফরোয়ার্ড নিয়ে কথা বলছি। মানে, সালাহ- তাদের সঙ্গে সবসময়ই রিয়ালকে জড়িয়ে কথা হবে।’

২০১৮ সালে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে সালাহকে ফাউল করে বড় রকমের ইনজুরি ঘটিয়ে ছিলেন রিয়াল অধিনায়ক সার্জিও রামোস। সেই ঘটনার পর সালাহর বার্নাব্যুতে যাওয়া ঠিক হবে না বলেই মনে করছেন এলরিজ।

‘ব্যক্তিগতভাবে মনে করি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে সালাহর সঙ্গে রামোস যেমন আচরণ করেছিল, আমি হলে সারাজীবন রিয়ালকে ঘৃণা করতাম। যদিও এমনটা আমার সঙ্গে ঘটেনি। তারপরও আমি লিভারপুল ছাড়তে চাইতাম না।’