চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

লগ্নী ফেরত আসার মতো সিনেমা ‘মানুষ কেন অমানুষ’

শারীরিক অসুস্থার কারণে প্রায় তিন বছর ক্যামেরা-শুটিং থেকে দূরে ছিলেন মনোয়ার হোসেন ডিপজল। নতুন খবর, আবার শুটিংয়ে নেমেছেন মনোয়ার হোসেন ডিপজল। নিজের প্রযোজনায় ‘মানুষ কেন অমানুষ’ সিনেমার শুটিং করছেন তিনি।

ডিপজলের নতুন এ সিনেমায় গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন জয় চৌধুরী ও মৌ খান। নায়ক জয় চৌধুরী চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, ভীষণ সিরিয়াসভাবে কাজ করছি। একই লোকেশনে দুই ক্যামেরায় আলাদা আলাদাভাবে আমরা শুটিং করছি। ১৪ জানুয়ারি থেকে শুটিং শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যেই ৮০ ভাগ কাজ শেষ।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, আগে ১১-১২ টা না বাজলে শুটিং শুরু হতো না। কিন্তু এখন সকাল ৭টা থেকে শুটিং চলে। আমরা দুপুর পর্যন্ত টানা শুটিং করি। আবার ডিপজল আংকেল দুপুর থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত তার অংশের শুটিং করেন। উনি সাড়ে তিনবছর পর আবার শুটিং করছেন। শারীরিকভাবে সুস্থ আছেন। কোনো সমস্যা ছাড়াই কাজ হচ্ছে।

জয় চৌধুরী বলেন, অশ্লীলযুগের পর ইন্ডাস্ট্রি যায় যায় অবস্থা তখন বড় বড় প্রযোজকরা অল্প বাজেটে সিনেমা করেছেন। ঠিক তখনই চলচ্চিত্র ঘুরে দাঁড়িয়েছিল। এখন সংকটকালীন যে অবস্থা তাতে সিনেমা বানালে টাকা ফেরত আসার সম্ভাবনা কম। দর্শকদের সচল রাখার জন্য সিনেমা হচ্ছে না। বড় আয়োজনের সিনেমা পরেও করা যাবে। বর্তমানে গল্প নির্ভর সিনেমা করতে হবে। যেখানে নায়ক নায়িকা ফ্যাক্ট নয়, গল্পটাই হবে সব।

তিনি বলেন, আমরা তাই করছি। লগ্নী ফেরত আসার মতো সিনেমা ‘মানুষ কেন মানুষ’। এ পলিসিতে আরও কয়েকটি সিনেমা একের পর এক তৈরি হবে। আমাদের টিমের প্রত্যেকটা শিল্পী থেকে টেকনিশিয়ান সবাই খুব সিরিয়াস। যেকোনো ভাবে কাজ করে সিনেমা বাড়াতে হবে। অল্প বাজেটে সিনেমা করে প্রযোজক বাঁচিয়ে লগ্নী ফেরত দিতে হবে। আমরা অ্যাকশন বা অন্য ঘরানায় যাচ্ছি না। গল্প প্রাধান্য দিয়ে কাজ করছি।

জয় চৌধুরী বলেন, ডিপজল আংকেল এবং আমার গল্পের মধ্যে কাউন্টার গল্পের সিনেমা ‘মানুষ কেন অমানুষ’। ছবিটি তৈরি করছেন মনতাজুর রহমান আকবর। চিত্রনাট্য ও সংলাপ করেছেন আবদুল্লাহ জহির বাবু। অন্যান্য চরিত্রে আরও অভিনয় করছেন রাশেদা চৌধুরী, দুলারী, বড়দা মিঠু, জ্যাকি আলমগীর।