চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রওশন-কাদেরের পাল্লাপাল্টি অবস্থানে এখন পর্যন্ত যা ঘটলো

জাতীয় পার্টির একাংশ রওশন এরশাদকে বিরোধী দলের নেতা ঘোষণার কয়েক ঘন্টা পরে গোলাম মোহাম্মদ কাদের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, গঠনতন্ত্র মেনে এবং প্রয়াত চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের রেখে যাওয়া নির্দেশনা মতে তিনিই এখন পর্যন্ত জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান।

বৃহস্পতিবার সকালে রওশন এরশাদের গুলশানের বাসায় সংবাদ সম্মেলনের পর জাপার বনানীস্থ রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ প্রতিক্রিয়া জানান জিএম কাদের।

বিজ্ঞাপন

তার এ দাবির সপক্ষে জাপার প্রতিষ্ঠাতা চেয়াম্যান ও সাবেক সেনা শাসক হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের নির্দেশনা তুলে ধরেন তিনি।  তিনি বলেন: আমার চেয়ারম্যান হওয়ার বিষয়ে পল্লীবন্ধু এরশাদের গঠনতন্ত্র মোতাবেক পরিষ্কার নির্দেশনা ছিল।  এরপর প্রেসিডিয়ামের সভায় গৃহীত হয়েছে, এটা নিয়ে কোন বিতর্ক নেই। যেহেতু ৮ সেপ্টেম্বরের আগেই বিরোধী দলের নেতাকে হবেন, এ বিষয়ে সিদ্ধান্তে আসতে হবে। তাই সংখ্যাগরিষ্ঠের মতামতের ভিত্তিতে আমি স্পিকার বরাবর চিঠি দিয়েছি।

বিজ্ঞাপন

এসময় তিনি আরও বলেন: পার্টিতে প্রেসিডিয়ামের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত বলে গণ্য হয়ে থাকে। যদিও চেয়ারম্যানকে স্পেশাল পাওয়ার দেওয়া রয়েছে। চেয়ারম্যান চাইলেই যে কোন পরিস্থিতিতে যেকোন সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসেবে আমি প্রেসিডিয়ামের দুইটি মিটিং এবং চেয়ারম্যান হিসেবে একটি মিটিং করেছিলাম।  একটি ২২ জুন, আরেকটি ৩ জুলাই। আমাদের চেয়ারম্যানের মৃত্যুর পর ১৭ আগস্ট সর্বশেষ আমরা প্রেসিডিয়ামের মিটিং করি।

তিনি আরও যোগ করেন: সেই প্রেসিডিয়াম মিটিং এর রেজুলেশন আমার কাছে রয়েছে। সেখানে প্রেসিডিয়ামের সভায় সর্বসম্মতভাবে পার্টির চেয়ারম্যান হিসেবে গোলাম মোহাম্মদ কাদের দায়িত্ব প্রদান করা হয়। এখানে চেয়াম্যানের কথা বলা হয়, ভারপ্রাপ্ত চেয়াম্যান নন। এরপর প্রেসিডিয়াম আমাকে বিরোধী দলে নেতা হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের জন্য প্রস্তাব করে। সেটিও সর্বসম্মতভাবে গৃহীত হয়। কাজেই কে চেয়াম্যান, এটা নিয়ে বিতর্ক থাকার কথা নয়।

এরআগে সকালে দশম জাতীয় সংসদের বিরোধী দলের নেতা ও প্রয়াত জাপা চেয়াম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের স্ত্রী রওশন এরশাদের গুলশানের বাসায় আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ জাপা চেয়াম্যান হিসেবে রওশন এরশাদের নাম ঘোষণা করেন। একই সঙ্গে ছয় মাসের মধ্যে কাউন্সিলের ঘোষণা দেন তিনি।

এসময় রওশন বলেন: পার্টিতে কী হচ্ছে? জাতীয় পার্টি কী আবার ভাঙতে যাচ্ছে? অতীতে কিন্তু জাপা ভেঙেছে। আসুন সবাই মিলে পার্টিটাকে ভাঙনের হাত থেকে রক্ষা করি।

Bellow Post-Green View