চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যুক্তরাষ্ট্রের আধিপত্যে টোকিও মহাযজ্ঞের পর্দা নামল

রেকর্ড-বিশ্বরেকর্ড ভাঙা-গড়া। সোনা, রুপা, ব্রোঞ্জ জয়ের হাসির সঙ্গে শরীরে জাতীয় পতাকা জড়িয়ে জাতীয় সংগীতের তালে সিনা চওড়া করার গর্ব। অনেক স্বপ্নভঙ্গ আর আগামীর প্রত্যাশা সঞ্জীবনী করে পর্দা নামল গ্রেটেস্ট শো অন আর্থের। বাতি নিভল মহামারীকালের ক্রীড়া মহাযজ্ঞ টোকিও অলিম্পিকের।

গত ২৩ জুলাই পর্দা উঠেছিল, ১৭ দিনের রোমাঞ্চ আর আনন্দ-বেদনার কাব্য লিখে পদকে চীনের সাথে হাড্ডাহাড্ডি টক্করে যুক্তরাষ্ট্রের আধিপত্যের মধ্য দিয়ে রোববার ৮ আগস্ট শেষ হল টোকিও অলিম্পিক ২০২০ আসরের।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

অনেক সমালোচনা ও প্রশ্নের মুখে মাঠে গড়িয়েছিল করোনাকালের গেমসের। স্বাগতিক জাপান তাতে দারুণ সাফল্য এনেছে। ২৭টি স্বর্ণ পদক, ১৪টি রুপা ও ১৭টি ব্রোঞ্জসহ মোট ৫৮ পদক নিয়ে তৃতীয় হয়ে ঘরের মাঠের গেমস শেষ করেছে জাপানিজরা।

সর্বোচ্চ সোনা জয়ের ফয়সালা হয়েছে অবশ্য শেষদিনে এসে। তাতে আধিপত্য ধরে রেখেছে গত রিও আসরে মোট ১২১ পদক জেতা যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিনীরা ৩৯টি সোনার পদক জিতেছে এবার, সঙ্গে ৪১টি রুপা ও ৩৩টি ব্রোঞ্জসহ মোট ১১৩ পদক নিয়ে শীর্ষে।

বিজ্ঞাপন

টোকিওয় দুইয়ে চীন। দেশটি ৩৮টি স্বর্ণ পদক, ৩২টি রুপা ও ১৮টি ব্রোঞ্জসহ মোট ৮৮ পদক ঝুলিতে জমিয়ে এবারের গেমস শেষ করেছে। চীন রিও গেমসে জিতেছিল ৭০টি পদক।

রিও আসরে ৬৭টি পদক নিয়ে দ্বিতীয় হওয়া গ্রেট ব্রিটেন টোকিওতে চারে থেকে গেমস শেষ করেছে। দেশটি ২২টি সোনার পদক, ২১টি রুপা ও ২২টি ব্রোঞ্জসহ মোট ৬৫ পদক ঝুলিতে নিয়েছে এবার।

টোকিওয় অন্তত একটি করে সোনার পদক জিতেছে ৬৩টি দেশ। ৮৬টি দেশ কোনো না কোনো পদক জিতেছে। বাংলাদেশ থেকে অংশ নিয়েছিলেন ছয় অ্যাথলেট, পদকের প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেননি কেউই।

অলিম্পিকের পরের আসর ২০২৪ সালে, বসবে আইফেল টাওয়ার ও ল্যুভর মিউজিয়ামের অনিন্দ্যসুন্দর শহর ফ্রান্সের প্যারিসে।